kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সব রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে এবার ড্রোনকে কাজে লাগিয়ে অপচেষ্টা করে চলেছে পাকিস্তান। এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করেছে পঞ্জাব সরকার। তাদের দাবি, পাকিস্তানের ড্রোনের সাহায্যে অস্ত্রশস্ত্র এবং বিস্ফোরক পাঠাচ্ছে। যা ভারতীয় সীমান্তরক্ষীদের দাবিকে রীতিমতো প্রশ্নের মুখে ফেলে দিয়েছে। কারণ বিএসএফ দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে এসেছে যে অপারেশন সুদর্শনের মাধ্যমে সীমান্তকে পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পঞ্জাব সরকারের এই দাবি প্রতিরক্ষামন্ত্রকের সুরক্ষার ওপরও প্রশ্ন তুলে দিয়েছে।

পঞ্জাব পুলিশের একটি সূত্র এনডিটিভিকে জানিয়েছেন, ‘প্রচুর পরিমাণে একে-৪৭ রাইফেল এবং গ্রেনেড পাকিস্তান থেকে ড্রোনের মাধ্যমে অমৃতসরে পাঠানো হয়েছে। আমরা নিশ্চিত এই ড্রোনগুলি পাকিস্তান থেকেই এসেছে। চলতি মাসেই কমপক্ষে আটটি ড্রোন ব্যবহার করে এই অভিযান চালানো হয়েছে বলে খবর আছে আমাদের কাছে। মূলত জম্মু কাশ্মীরকে অশান্ত করতেই এই ড্রোনগুলি ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।’ পঞ্জাবের অন্য এক আধিকারিকের কথায়, ‘বিএসএফের দাবি আমাদের আরও চিন্তায় ফেলেছে। কারণ এত ছোট উড়ন্ত বস্তু রেডারে ধরা পড়ে না বলে জানানো হয়েছে। ফলে রাতের অন্ধকার কাজে লাগিয়েই এই কাজ পাকিস্তান করছে।’

চাঞ্চল্যকর এই খবর পেয়েই বরিষ্ঠ বিএসএফ আধিকারিক বিবেক জোহুরি পঞ্জাব সফরে বেরিয়ে পড়েছেন। সামগ্রিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে পাক ড্রোনগুলির সঙ্গে যুঝতে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া যায় তাও আলোচনা করে দেখা যাবে। কোন প্রযুক্তিতে পাকিস্তান থেকে আসা ড্রোনগুলিকে ট্র্যাক করা সম্ভব তা নিয়েও বৈঠক করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রের তরফেও গোটা ঘটনা সম্পর্কে রিপোর্ট তলব করা হয়েছে বিএসএফের কাছে। তবে পাকিস্তানের কাছে থেকে এই ধরনের আচরণই যে প্রত্যাশিত তা বলেও কটাক্ষ করেছেন বায়ুসেনার ওই আধিকারিক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here