ডেস্ক: একদিকে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে দ্বন্দ্বের আবহাওয়া চলছে। একে অপরকে আক্রমণ করতে পিছু হটছে না দুই দেশই। এই আবহাওয়ার মধ্যেই সাত পাঁকে বাধা পড়ে গেলেন তারা। ভারত-পাকিস্তানের তিক্ততার সম্পর্ককে ভালোবাসার সম্পর্কে গড়ে তুললেন পাকিস্তানি কনে আর ভারতীয় বর। তিন বছর ধরে প্রেম চলছিল কিরণ চিমা এবং পলবিন্দার সিংয়ের মধ্যে। বিয়ে সেরে ফেললেন দুজনেই। তবে এই দুজনের মিলনের নেপথ্যে রয়েছে সমঝোতা এক্সপ্রেস।

সমঝোতা এক্সপ্রেসে করেই ভারতে এসেছিলেন কিরণ তার আত্মীয়ের বাড়িতে। আর এই আত্মীয়ের বাড়িতে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন পলবিন্দর। সেখানেই তাদের প্রথম আলাপ। প্রথম দেখাতেই একে অপরের প্রেমে পড়ে যান কিরণ-পলবিন্দর। কিরণকে দেখতে কখনও তিনি পাকিস্তানে পাড়ি দিতেন, আবার পলবিন্দরের জন্য কিরণও ভারতে এসেছিলেন। এরপর বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন কিরণ-পলবিন্দর জুটি। এক বছর আগেই বিয়ের সিদ্ধান্তের কথা জানান পরিবারকে। দুই পরিবারই রাজি ছিল। কিন্তু হঠাৎই যেন কালো মেঘ ঘনীভূত হল দুজনের সম্পর্কে।

১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার ঘটনায় গোটা দেশ নড়েচড়ে বসেছিল। কিরণ এবং পুলবিন্দরের পরিবারেও যেন সেই কালো মেঘ ঘনীভূত হচ্ছিল। ভারত-পাকিস্তানের টানাপোড়নের জেরে বাতিল করে দেওয়া হয় সমঝোতা এক্সপ্রেস। যেই সমঝোতা এক্সপ্রেসে তাদের সম্পর্ক শুরু হয়েছিল সেই এক্সপ্রেসই বন্ধ হয়ে গেল। কিন্তু এতে হার মানেনি ভালোবাসা। শেষমেষ সমঝোতা এক্সপ্রেস চালু হয়। দুই দেশের উদ্যোগে লাহোর-দিল্লিগামী এই ট্রেন ফের চালু হয়। এরপর কিরণ বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের শিয়ালকোট থেকে সোজা এসে পৌঁছান পঞ্জাবের পাতিয়ালায়। পঞ্জাবে এসে কিরণ-পিলবিন্দরের বিয়ে সম্পূর্ণ হয়। তাদের একটাই প্রার্থনা ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক যেন সারাজীবন অটুট থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here