kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি : কলকাতায় তুলে আনা হচ্ছে পুরীর আস্ত জগন্নাথ মন্দির! বিগ্রহও হচ্ছে পুরীর আদলে। তৈরি করেছেন ওই মন্দিরের পান্ডারা, যাঁরা এক যুগ পরে পরে বিগ্রহ তৈরি করেন জগন্নাথ দেবের, তাঁরাই। মন্দিরের দ্বারোদ্ঘাটন রথযাত্রার দিন। সেদিন থেকেই মন্দিরের দ্বার খুলে দেওয়া হবে আম জনতার জন্য।

ads

উত্তর কলকাতার উল্টোডাঙার মুচিবাজার এলাকায় আস্ত পুরীর মন্দির। ১২ জুলাই রথযাত্রার দিন দ্বারোদ্ঘাটন হবে মন্দিরের। জোর কদমে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। তৈরি হয়ে গিয়েছে জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রার বিগ্রহ। পুরীর মন্দিরে যাঁরা বিগ্রহ তৈরি করেন, তাঁদের বংশধরেরাই তৈরি করেছেন এখানকার তিন দেবতার মূর্তি। মূর্তি তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে আগেই। এবার চলছে প্রাণপ্রতিষ্ঠার প্রস্তুতি। পুরীর মন্দিরের আদলেই ৩২ ফুট উঁচু ওই মন্দির নির্মাণের কাজও প্রায় শেষের মুখে। পুরীর মন্দিরের আদলেই এখানেও হচ্ছে সিংহদুয়ার।  

কেন পুরীর আস্ত মন্দির উঠে আসছে উল্টোডাঙায়?  এখানেই আসছে দেবতার মানত শোধের গল্প। সাধন পাণ্ডে ন’বার এলাকার বিধায়ক হলে জগন্নাথের মন্দির গড়বেন বলে মানত করেছিলেন কলকাতা তৃণমূলের জয়হিন্দ বাহিনীর সহ সভাপতি প্রতাপ দেবনাথ। এবার জেতায় ন’বার বিধায়ক হলেন সাধন। সেই কারণেই মানত শোধের উদ্যোগ প্রতাপের। সেই মতো চলছে মন্দির নির্মাণের কাজ।  

পুরীর রীতি মেনেই পালন করা হবে যাবতীয় আচার। স্নানযাত্রা, রথযাত্রার মতো অনুষ্ঠানও হবে প্রথা  মেনে। তবে করোনা অতিমারীর কারণে আপাতত ভক্ত সমাগম বন্ধ থাকবে মন্দিরের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। যদিও বছরের বাকিদিনগুলি ভক্তদের দর্শন দেবেন জগতের নাথ-জগন্নাথ।   

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here