ডেস্ক: দেশজুড়ে একের পর এক আর্থিক প্রতারণার তালিকায় এবার সামিল প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়ের নাম। নিজের শহর বেঙ্গালুরের একটি বেসরকারী সংস্থার ফাঁদে পড়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের দ্রোণাচার্য।

বেঙ্গালুরের সদাশিব নগর থানায় রবিবার এই নিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। রাহুলের অভিযোগ, সংস্থাটি তাঁর সঙ্গে ৪ কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণা করেছে। পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, একটি বেসরকারি সংস্থায় বেশি সুদের প্রতিশ্রুতি পেয়ে ২০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন তিনি। কিন্তু বেশি সুদ দূর অন্ত, তাঁর বিনিয়োগের টাকাও ফেরত পাননি তিনি। উল্টে মাত্র ১৬ কোটি টাকা ফেরত পেয়েছেন তিনি।

তবে রাহুল দ্রাবিড় একা নন, সংস্থাটির বিরুদ্ধে প্রায় ১২ কোটি টাকা বিনিয়োগ করে টাকা ফেরত না পাওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন আরেক ব্যক্তি। আর্থিক প্রতারণার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরই আরও ১০০ জন অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, রাহুল ছাড়াও সাইনা নেহওয়াল, প্রকাশ পাড়ুকোনের মতো একাধিক তারকারাও এই সংস্থায় বিনিয়োগ করেছেন। কমপক্ষে ৮০০ জন সংস্থাটিতে ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন বলে সংবাদ মাধ্যমকে জানায় পুলিশ।

অন্যদিকে, অভিযুক্ত সংস্থার এমডি রাঘবেন্দ্র শ্রীনাথকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করে নিয়েছে পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে সামিল রয়েছেন প্রাক্তন ক্রীড়া সাংবাদিক সূত্রম সুরেশও। জানা গিয়েছে, বিনিয়োগকারীদের টাকা বিদেশে পাচার করে দেওয়া হতো।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here