rahul gandhi attack govt

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সম্প্রতি এক আরটিআই এ দেশের জালিয়াত ব্যবসায়ীদের তালিকা প্রকাশ করেছে আরবিআই। শুধু তাই নয়, ঐ সমস্ত ‘বেইমান’দের ঋণও মুকুব করে দিয়েছে সরকার। অথচ এই প্রশ্নই একদিন সংসদে করেছিলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। সেদিন সে উত্তর মেলেনি। মঙ্গলবার এই তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই টুইটে সরব হয়ে উঠলেন কংগ্রেসের ওই সংসদ।

মঙ্গলবার টুইটে সংসদের পুরানো সেই ভিডিও প্রকাশ করে রাহুল গান্ধী লেখেন, ‘সংসদে সেদিন একটি সহজ প্রশ্ন করেছিলাম আমি। দেশের সবচেয়ে বড় ৫০ জন ব্যাংক জালিয়াতের সঙ্গে যুক্ত ব্যবসায়ী নাম জানতে চেয়েছিলাম। অর্থমন্ত্রী সেদিন নাম প্রকাশ করতে চাননি। এবার রিজার্ভ ব্যাংক মেহুল চোকসি সহ বিজেপির ব্যাংক জালিয়াত বন্ধু গুলির নাম প্রকাশে আনল। এই কারণেই সংসদে এই সত্যটা লুকানো হয়েছিল।’ প্রসঙ্গত, সাকেট গোখলে নামে এক ব্যক্তি সম্প্রতি তথ্য জানার অধিকার আইনে আরবিআই-এর কাছে প্রশ্ন করেছিলেন দেশের সবচেয়ে বড় ৫০ জন ঋণখেলাপি অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম, ও কত টাকা তারা ঋণ খেলাপ করেছে তা জানতে চেয়ে।

সেই প্রশ্নের উত্তরে যে তথ্য রিজার্ভ ব্যাংক প্রকাশ্যে এনেছে তা চোখ কপালে তুলে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। জানা গেছে, দেশের আর্থিক বিপর্যয়ের সময় সরকার স্রেফ মুকুব করে দিয়েছে ৬৮ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। তথ্য বলছে ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত মেহুল চোকসির ৫ হাজার ৪৯২ কোটি টাকা মুকুব করেছে রিজার্ভ ব্যাংক। দ্বিতীয় স্থানে যার নাম রয়েছে তিনি REI Agro’র দুই ডিরেক্টর সঞ্জয় এবং সন্দীপ ঝুনঝুনওয়ালা। এই দুজনের মকুব করা হয়েছে ৪ হাজার ৩১৪ কোটি টাকার ঋণ। একইসঙ্গে গুজরাটি হিরে ব্যবসায়ী যতীন মেহেতারও প্রায় ৪ হাজার ৭৬ কোটি টাকা মকুব করে দিয়েছে দেশের শীর্ষ ব্যাংক। পাশাপাশি রয়েছেন রামদেবও। তাঁর বিজনেস পার্টনার আচার্য বালাকৃষ্ণর সংস্থার ২ হাজার ২১২ কোটি টাকা মুকুব করা হয়েছে। তুলনায় কম হলেও বিজয় মালিয়ার ১ হাজার ৯৪৩ কোটি টাকা মুকুব করেছে সরকার। তবে এটাই শেষ নয় এমন একাধিক ঋণখেলাপির ৬৮ হাজার ৬০০ কোটি টাকা ঋণ মুকুব করে দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। এই পরিসংখ্যানই এদিন প্রকাশ্যে এনে সরব হয়ে উঠলেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here