ডেস্ক: মালদার চাঁচল থেকেই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের প্রথম প্রচার শুরু করলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ এদিন চাঁচলের এই নির্বাচনী প্রচার সভায় রাহুলে নিশানায় ছিলেন মোদী ও দিদি দুজনেই৷ মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রতি দিয়েও তা রক্ষা করেননি৷ তাদের সেই অসম্পূর্ণ কাজ কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে করে দেখাবে, চাঁচলের সভা থেকে সেই প্রতিশ্রতি দিয়ে গেলেন কংগ্রেস সভাপতি৷ কয়েকদিন আগেই যে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে জোট নিয়ে আলোচনা চলছিল, এদিন চাঁচলের সভা থেকে সেই তৃণমূলনেত্রীর কাজের ক্ষতিয়ান নিয়ে একের পর এক প্রশ্ন তুললেন রাহুল৷ বললেন, বাংলার পরিস্থিতি আপনারা জানেন৷ বাংলায় কি কাজ হয়েছে৷ কৃষকদের ঋণ মুকুব হয়নি৷ মুখ্যমন্ত্রী শুধুই প্রতিশ্রতি দেন৷ কংগ্রেস নির্বাচনে জিতে সরকার গড়লে কৃষকদের সব ঋণ মুকুব করে দেবে জানালেন রাহুল গান্ধী৷

পাশাপাশি এদিন নরেন্দ্র মোদী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেখে রাহুল বলেন, দেশে যথেচ্ছ পরিমাণ সরকারি হাসপাতাল নেই, রোগীরা বিনা পয়সায় ঠিক মতো পরিষেবা পান না, বেশীরভাগ সরকারি হাসপাতালের বেসরকারিকরণ হয়ে গিয়েছে৷ এইসব হাসপাতালে লক্ষ লক্ষ টাকা দিলে তবেই রোগীরা চিকিতসা করাতে পারেন৷ কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে বাংলা সহ গোটা দেশে সরকারি হাসপাতাল ও রোগীদের বিনা পয়সায় পরিষেবার ব্যবস্থা করবে৷ বাড়ানো হবে সরকারি স্কুল-কলেজের সংখ্যাও, যেখানে গরীবরা তাদের সন্তানদের পড়াতে পারবেন, কংগ্রেস সভাপতির বক্তৃতায় উঠে আসে সেইসব প্রতিশ্রতির কথাও৷ মোদীর প্রধানমন্ত্রিত্বকালে বেকারত্ব বেড়েছে৷

 

২ কোটি বেকারদের কর্মসংস্থান করার কথা দিয়েও কথা রাখেন নি মোদী৷ তবে এবার কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে সেইসব শূণ্যস্থান পূরণ হবে বলেই জানালেন কংগ্রেস  সভাপতি৷ শুধু তাই নয়, জিএসটি এনে মোদী ছোট দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের যেভাবে সমস্যায় ফেলেছেন কংগ্রেস সরকার গড়লে সেই জিএসটির সংস্কার করবে বলেও প্রতিশ্রতি দেন রাহুল৷ কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে দেশের প্রত্যেকটি ব্যক্তির জন্য ন্যূনতম রোজগার গ্যারান্টি চালু করবে সরকার। এই স্কিমে প্রত্যেক মানুষের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা দেওয়া হবে।  নোটবন্দী করে সাধারণের অ্যাকাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেও পিছিয়ে গেছেন মোদী, কিন্তু ক্ষমতায় এলে গরীবদের অ্যাকাউন্টে টাকা দিয়ে মোদীর অসম্পূর্ণ প্রতিশ্রতি পূরণ করবে কংগ্লেস জানান রাহুল গান্ধী৷

 

এদিন মালদার চাঁচল থেকেই রাজ্যে কংগ্রেসের হয়ে নির্বাচনী প্রচার শুরু করলেন রাহুল গাঁধী। এদিন দুপুরে বিহারে একটি জনসভা করার পর সরাসরি সেখান থেকেই তিনি সরাসরি এসে পৌঁছন মালদহে। এদিনের রাহুলের সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র, কংগ্রেস নেত্রী দীপা দাসমুন্সি, আবু হাসেন খান চৌধুরী, মালদহ উত্তরের কংগ্রেস প্রার্থী ঈশা খান চৌধুরী এবং কংগ্রেস নেতা গৌরব গগৈ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here