ডেস্ক: সামনে লোকসভা ভোট, তার আগে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিজেপি বিরোধিতার পটভূমি তৈরি করে রাখতে জনসভার চালিয়ে যাচ্ছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। যুদ্ধের ময়দানে যাতে কেউ পিছুনা হঠে তারজন্য রাজনীতির মাঠে নিজেদের কর্মী সমর্থকদের উদ্দীপ্ত করতে একমাত্র মাধ্যম হল জনসভায় আগুন ঝরানো ভাষণ। তা বেশ ভালই করে যাচ্ছেন রাহুল। তবে লড়াইতে প্রতিদ্বন্দ্বীও কম শক্তিশালি নয়, ফলে বিজেপি শাসিত রাজ্যে জনসভা করতে গেলে কিছুটা যে বেগ পেতে হবে তা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু শর্তের চাপ যে এতখানি হবে তা বোধহয় ভাবতে পারেননি কংগ্রেস সভাপতি। বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশে রাহুলের জনসভার আবেদনে একরাশ শর্ত চাপানো হল প্রশাসনের তরফে।

আগামী ৬ জুন মধ্যপ্রদেশের মানসৌরে জনসভার কথা রয়েছে রাহুলের। কিন্তু তার আগেই রাহুলের এই জনসভায় একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করল মধ্যপ্রদেশের মালহারগড়ের মহকুমা আধিকারিক। নির্দেশিকার সেই দীর্ঘ তালিকার প্রথমেই উল্লেখ করা রয়েছে, কোনওরকম ডিজে সাউন্ড সিস্টেম ব্যবহার করা যাবে না এই জনসভায়। সেইসঙ্গে বলা হয়েছে জনসভায় রাহুল এমন কোনও বক্তব্য পরিবেশন করতে পারবেন না যা মানুষের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানে।

শুধু তাই নয়, দীর্ঘ এই তালিকায় সভার জন্য বানানো তাবু কতটা জায়গার মধ্যে বানাতে হবে তাও ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ঝড়, বৃষ্টি ও আগুন মোকাবিলার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করতে হবে সভার কর্তৃপক্ষকে। যদি সভাস্থল থেকে কোনও গাড়ি চুরি হয়, তাহলে দায়ী থাকবেন আয়োজকরাই। সেইসঙ্গে এটাও বলে দেওয়া হয়েছে এই সভায় যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তা নিশ্চিত করতে হবে সভার আয়োজকদের। আর যদি কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে তবে সঙ্গে সঙ্গে সভা বন্ধ করে দিতে বাধ্য থাকবে প্রশাসন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here