ডেস্ক: নির্বাচনের প্রথম দফা শেষে দ্বিতীয় দফা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বৃহস্পতিবার। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি দাওয়া শেষ হচ্ছে না বিজেপি নেতাদের। কখনও রাজ্যের সকল বুথকে স্পর্শকাতর ঘোষণার দাবি। কখনও বা সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন। এই সকল দাবি নিয়ে বিজেপি নেতারা এতবার কমিশনে যাওয়া শুরু করেছেন যে তাদের অনেকের দ্বিতীয় ঘরই হয়ে গিয়েছে নির্বাচন কমিশনের দফতর। এবার ফের একবার কমিশনের কাছে নতুন দাবি নিয়ে হাজির হলেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা।

বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা দাবি করেছেন, গোটা পশ্চিমবঙ্গকেই উপদ্রুত রাজ্য হিসেবে ঘোষণা করতে হবে। প্রত্যেক বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করতে হবে। বাংলার প্রতিটি বুথকেও ‘স্পর্শকাতর’ হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছেন তিনি। এর কারণ উল্লেখ করে রাহুল সিনহা বলছেন, গোটা রাজ্যই অশান্তিতে ছেয়ে গেছে। নিজের যুক্তির সাপেক্ষে রাহুলবাবু পালাবদলের সময়ের কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, তৃণমূল হোক বা সিপিএম, কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করানোর ফলেই তারা ক্ষমতায় এসেছিল। তাই তৃণমূলকে তাড়াতে কেন্দ্রীয় বাহিনীই একমাত্র উপায় হতে পারে।

যদিও কমিশন ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে বহু আগেই জানানো হয়েছিল, কখনও কোনও রাজ্যের সব বুথ স্পর্শকাতর হতে পারে না। তবে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে প্রথম দফার ভোটে যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর অভাব ছিল তা স্পষ্ট। সেই কারণে দ্বিতীয় দফায় দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জের ভোটে প্রায় ৮০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। তবে রাহুলের দাবি মেনে সব বুথকে যে স্পর্শকাতর ঘোষণা করার কোনও ইঙ্গিত নেই তা হলফ করেই বলা চলে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here