kolkata bengali news

ডেস্ক: ‘আর কেউ না পারলে আমি কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করব। ওখানে গিয়ে থাকবো।’ বুধবার দুপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের ইস্তেহার প্রকাশের পর এহেন মন্তব্য করতে শোনা যায় মুখ্যমন্ত্রীকে। কিন্তু মমতার এই দাবিকে হাস্যকর বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। উত্তর কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থীর বক্তব্য, যিনি সামান্য ভাঙড় সমস্যার সমাধান করতে পারেন না, তিনি কাশ্মীর সমস্যার সমাধান সূত্র কীভাবে বের করবেন।

এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে ইস্তেহার প্রকাশ করা নিয়েও জোর তোপ দেগেছেন রাহুলবাবু। বলেন, ‘এটা পৌরসভা নির্বাচন না বিধানসভা নির্বাচনে। ইস্তেহার প্রকাশ করে উনি লোক হাসাচ্ছেন কেন? তর্কের খাতিরে যদি ধরেও নেওয়া যায় রাজ্যের সবকটা আসন ওনারা পাবেন, তাতেও কেন্দ্রে সরকার গড়ার বিন্দুমাত্র ক্ষমতা তৃণমূল কংগ্রেসের হবে না। এসব লোক হাসানোর ইস্তেহার প্রকাশ করে কী লাভ?’ প্রশ্ন রাহুলবাবুর।

অন্যদিকে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান নিয়ে পাল্টা কটাক্ষ করে রাহুল সিনহা বলেন, ‘যিনি ভাঙড় সমস্যার সমাধান করতে পারেন না, তিনি কাশ্মীর সমস্যা ঠিক করতে পারবেন?’ পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে যেভাবে পরবর্তী বাঙালি প্রধানমন্ত্রী রূপে প্রজেক্ট করা হচ্ছে, তাতে কোনও লাভ হবে বলে মনে করছেন না উত্তর কলকাতার টিকিট পাওয়া এই বিজেপি নেতা। রাহুল সিনহার মতে, প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসতে যে সমর্থন প্রয়োজন, তা নেই মমতার কাছে।

এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি কার্যালয় ও ব্রিজে নীল-সাদা রং করা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও তোলেন রাহুল সিনহা। বলেন, ‘একটা রাস্তা এক বছরে চারবার রং হচ্ছে। নিজেদের কিছু লোককে টাকা পাইয়ে দিতে এই কাজ চলছে। মমতার রং তিনমাসের বেশি টেকে না। ওই রং ধুয়ে মাটির জলে মিশছে আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার মানুষকে ক্যানসারের মুখে ঠেলে দিচ্ছেন।’

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here