মহানগর ডেস্ক: কিছুদিন আগেই পুদুচেরির নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে বেকায়দায় পড়েছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। রাহুলের ওই মন্তব্যের পরেই তাঁকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বরা। বেফাঁস মন্তব্যের জেরে এবার রাহুলের প্রতি আক্রমণ শানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সোনিয়া পুত্রের বেফাঁস মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই পুদুচেরির নির্বাচনী প্রচারে এদিন ঝড় তুললেন অমিত শাহ।

পুদুচেরিতে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে স্থানীয় মৎস্যজীবীদের সঙ্গে দেখা করেন রাহুল। তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “কৃষকদের সমস্যার কথা শোনার জন্য কৃষিমন্ত্রী রয়েছেন, কিন্তু মৎস্যজীবীদের সমস্যার কথা শোনার জন্য দেশে কেন কোনও মৎস্যমন্ত্রী থাকবেন না ?” রাহুলের এই মন্তব্যের পরেই সমালোচনার ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। রাহুলের প্রশ্নের উত্তর দিতে মাঠে নামেন খোদ মৎস্যমন্ত্রী। তারপর একে একে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরণ ঋজিজু, কেন্দ্রীয় বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, বিজেপি সংসদ অনুরাগ ঠাকুর থেকে শুরু করে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বরা রাহুলের এই মন্তব্যের সমালোচনায় মুখর হন।

রাহুলের মন্তব্যের রেশ টেনে এদিন কটাক্ষের সুরে শাহ বলেন, ‘রাহুল ভাইয়া… আপনি ছুটিতে ছিলেন, তাই হয়তো জানেন না।’ তারপর তিনি বলেন, কংগ্রেস জামানায় মৎস্য দফতর যা থাকলেও নরেন্দ্র মোদির সরকার দুই বছর আগে মৎস্যজীবীদের সুবিধার্থে এই মন্ত্রক চালু করেন। এরপর তিনি বলেন, ‘যে নেতা লোকসভায় চার বারের সাংসদ, তিনি জানেন না যে দেশে দুই বছর আগেই মৎস্য দফতর চালু করা হয়েছে।’ এরপর তিনি পুদুচেরিবাসীর উদ্দেশে জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনাদের কি মনে হয় কংগ্রেসের মতো একটা দল পুদুচেরির দায়িত্ব নিতে পারবে ?’

কিছুদিন আগেই পুদুচেরিতে নির্বাচনী প্রচারে এসে রাহুল গান্ধীকে একই ভাষাতে আক্রমণ করেন নরেন্দ্র মোদি। রাহুল গান্ধীর মতো একজন নেতা এধরণের প্রশ্ন কিভাবে করতে পারে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সরব হন নেটিজেনরাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here