kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে মাঝেরহাট ব্রিজ নতুন করে তৈরি করে ফেলা সম্ভব হবে। এই ভেবেই এগোচ্ছিল নতুন ব্রিজ নির্মাণের কাজ। কিন্তু রেলের তরফে এখনও ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে না, যার জন্যই আরও পিছিয়ে যাচ্ছে এই প্রোজেক্ট। এই প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীয়ূষ গোয়েলকে চিঠি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার পাল্টা চিঠিতে রাজ্য সরকারকেই তোপ দাগল কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক। বলা হল, রাজ্য সরকারের ঢিলেমিতে কাজ হচ্ছে না মাঝেরহাট ব্রিজের।

রেলমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে মমতা লিখেছিলেন, ব্রিজের যে অংশগুলি পূর্ত দপ্তরের অধীনে রয়েছে, সেগুলির কাজ চলছে দ্রুত গতিতে চললেও রেলের অংশের জন্যই থমকে রয়েছে কাজের ভবিষ্যৎ। এই প্রসঙ্গে পাল্টা চিঠিতে মমতার সরকারকে জানানো হয়েছে,

গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু তথ্য রাজ্যের থেকে চেয়েও এতদিনে পাওয়া যায়নি! তাই এই ব্রিজের কাজে ছাড়পত্র দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। আরও উল্লেখ করা হয়েছে, নকশা, নিরাপত্তা সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য রাজ্য সরকারের কাছ থেকে চেয়ে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সেই সংক্রান্ত কোনও তথ্যই রাজ্য সরকার এখনও পর্যন্ত রেলমন্ত্রককে দেয়নি।

সেই কারণে তাদেরও কিছু করার নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে পীয়ূষ গোয়েলের মন্ত্রক।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় যাতায়াতের পাশাপাশি গঙ্গাসাগর যাওয়ার জন্যও এই মাঝেরহাট ব্রিজই প্রধান মাধ্যম। গতবছর যা ভেঙে পড়ার পর থেকেই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় নতুন ব্রিজ গড়ে তোলার কাজ চালাচ্ছে রাজ্য সরকার। দুর্গাপুজোর আগে বা পরেই ব্রিজটি চালু করে দেওয়ার ইচ্ছে থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। অনেকেই মনে করছেন আগামী গঙ্গাসাগর মেলার জন্যই রেলমন্ত্রককে চাপ দিচ্ছেন মমতা। কিন্তু রেলমন্ত্রকের তরফে এমন উত্তর ফের কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের ইঙ্গিত দিয়ে দিল। এবার সত্যিই মাঝেরহাট ব্রিজ কবে সম্পূর্ণ হবে তা নিয়ে ধন্ধ রয়েই গেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here