ডেস্ক: লোকসভা পূর্বে বিরোধী জোটকে টেক্কা দিয়ে হালে ঠিকঠাক পানি পেতে বিভিন্ন রাজ্যে সভা করছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ থেকে শুরু করে খোদ মোদীজীও। জুলাই মাসেই বাংলায় আসার কথা রয়েছে তার। শনিবার রাজস্থান সফরে যাচ্ছেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে ১৩ উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের সূচনা করবেন তিনি। সব মিলিয়ে যার খরচ ২১০০ কোটি টাকা। কিন্তু সমস্যা অন্য জায়গায়, মোদীর এই সভায় লোক ভেড়াতেই রাজস্থানের বিজেপির সরকার খরচ করছে ৭ কোটি টাকা। যার জেরে সভার আগেই শুরু হল বিতর্ক।

চলতি বছরের শেষেই রয়েছে রাজস্থানে বিধানসভা নির্বাচন। কিছুদিন আগে রাজস্থানে বিধানসভা উপনির্বাচনে ডাহা ফেল করেছে বিজেপি। ফলে জনউন্নয়ন মূলক প্রকল্পের থেকেও বেশি করে এটিকে রাজনৈতিক সভা হিসাবেই দেখছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। রাজস্থানবাসীর মন পেতে একেবারে তাদের মধ্যে ঢুকে যাওয়ার চেষ্টা করবেন মোদী। কিন্তু সভায় যদি লোকই না আসে তাহলে কি করে কি হবে? সভাকে লোকে লোকারণ্য করে তুলতে রাজস্থান রাজ্যের ৩৩ টি জেলা থেকে ২ লক্ষ মানুষকে নিয়ে আসছে বসুন্ধরা রাজের সরকার। লোক আসার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে ৫ হাজার ৫৭৯ টি বাসের। এছাড়া রয়েছে আরও নানান খরচ সব মিলিয়ে মোট খরচের পরিমান দাড়িয়েছে ২২.৫৩ কোটি টাকা। একটি সরকারি সভায় এই বিপুল পরিমাণ খরচ নিয়ে বিরোধীদের রীতিমতো তুলধোনা করল বিরোধীরা।

বিরোধীদের দাবি, ‘একটি সরকারি সভায় কি করে সরকার এই বিপুল পরিমাণ টাকা খরচ করতে পারে। এটা কোনও সরকারি সভা নয় এটা বিজেপির দলীয় সভা।’ তবে বিরোধীদের এই অভিযোগ সম্পূর্ণরুপে খণ্ডন করেছে বিজেপি। তাদের বক্তব্য, এটা নরেন্দ্র মোদীর সম্পূর্ণ একটি সরকারি সভা কোনও দলীয় সভা নয়। রাস্তা থেকে শুরু করে জল, নিকাশি ব্যবস্থা মূলক বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here