narendra modi in parliament

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরণ বা এনপিআর নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অসংসদীয় শব্দ ব্যবহার করে বসেছিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর মুখ থেকে বের হয়েছিল ‘ঝুট (মিথ্যা)’। এহেন শব্দ ব্যবহারের জেরেই সংসদের কার্যবিবরণী থেকে বাদ পড়ল প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের অংশ। এই নিয়ে সংসদে দ্বিতীয় বার একই ঘটনা ঘটালেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের জবাবি বক্তৃতায় সন্ধে ৬টা ২০ থেকে ৬টা ৩০ মিনিট নাগাদ একটি অসংসদীয় শব্দ প্রয়োগ করেন প্রধানমন্ত্রী। যেখানে তিনি বলেন, এনপিআর নিয়ে বিরোধীরা ‘ঝুট’ (মিথ্যা) ছড়াচ্ছে। অসংসদীয় এই শব্দই রাজ্যসভার কার্যবিবরণী থেকে বাদ দিলেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু। সম্প্রতি এই বিবৃতি জারি করল খোদ রাজ্যসভা। দেশের প্রধানমন্ত্রী এহেন অসংসদীয় শব্দ কার্যবিবরণী থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়টিকে তাৎপর্যপূর্ণ হিসাবেই দেখছে ওয়াকিবহাল মহল।

তবে এই ঘটনা এই প্রথমবার নয়, এর আগেও ২০১৮ সালে বিকে হরিপ্রসাদকে নিয়ে সংসদে এক বক্তব্য পেশ করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে বিকে হরিপ্রসাদের নামের আদ্যাক্ষর সম্পর্কে অসম্মান জনক মন্তব্য করেন মোদী। সেখানেও মোদীর শব্দ প্রয়োগের জেরে ছাঁটা হয় ভাষণের অংশ। যদিও অসংসদীয় শব্দের তালিকা নেহাত কম নেই সংসদে এর আগে পাপ্পু, জামাই, নাথুরাম গডসের মতো একাধিক শব্দ বাতিল তালিকায় ফেলেছেন সংসদের অধ্যক্ষ। সেই তালিকায় এবার যোগ হল মোদীর শব্দও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here