ডেস্ক: কয়েক বছর আগে পর্যন্ত যে রামনবমীর কথা কেউ টেরই পেতেন না। সেই রামনবমী ঘিরে এখন তুঙ্গে বঙ্গীয় রাজনৈতিক তরজা। রবিবার রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছে রামনবমী পালন উৎসব। বেশিরভাগ জায়গায় শান্তিপূর্ণভাবে রামনবমী উৎসব পালিত হলেও বেশ কিছু জায়গায় অশান্তির খবর পাওয়া গিয়েছে।

রবিবার হাওড়া শহরের বিভিন্ন জায়গায় তলোয়ার ও গদা নিয়ে মিছিল করে বিজেপি। বেলুড়েও বের করা হয় একটি বড় মিছিল। হাওড়ার পাশাপাশি পুরুলিয়াতেও রামনবমীর মিছিলে দেখা যায় অস্ত্র। এখানে মিছিল বের করে বজরংদলের সমর্থকরা। এখানে বড়দের পাশাপাশি শিশু ও কিশোরদেরও হাতে দেখা যায় অস্ত্র। তবে রামনবমী ঘিরে কিছুটা উত্তেজনা ছড়ায় সল্টলেকে। এদিন সল্টলেকের ১৩ নং ট্যাঙ্ক থেকে শ্রাবণী আবাসন হয়ে পিএনবি পর্যন্ত বিজেপির একটি মিছিল কর্মসূচী ছিল যে মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। সল্টলেকের শ্রাবণী আবাসনের সামনে প্রায় ৩০ মিনিট ধরে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি সমর্থকরা। বিজেপির দাবি, এই মিছিলের পূর্ব অনুমতি থাকা সত্ত্বেও এই মিছিল আটকেছে পুলিশ। যদিও পরে ছেড়ে দেওয়া হয় এই মিছিল।

অন্যদিকে, চুচুড়ার হেমন্ত বসু কলোনিতে রামনবমীর পুজো ঘিরে হাতাহাতি শুরু হয় তৃণমূল ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে। রবিবার সকালে স্থানীয় রামমন্দিরে পুজো দিতে যান বিজেপি সমর্থকরা। তখন তৃণমূল কাউন্সিলর সুনীল মালাকার দলীয় সমর্থকদের নিয়ে তাঁদের বাধা দেন বলে অভিযোগ। দুই দলের মধ্যে বাধে হাতাহাতি। যদিও পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। কয়েকটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া সেভাবে অশান্তির সেরকম কোনও খবর পাওয়া যায়নি রাজ্যে। যাতে এই মিছিলকে ঘিরে কোনও রকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য মোতায়েন করা হয়েছে প্রচুর পুলিশকর্মী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here