মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাণু মন্ডল, রাণাঘাটের রেল স্টেশনে গান গেয়ে ইন্টারনেট সেনসেশন হয়ে যান। তারপরেই ভাগ্যক্রমে বলিউডে প্লেব্যাক সিঙ্গারের ভূমিকায় হিমেশের হাত ধরে উঠে এসেছেন রাণু। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁর সঙ্গে লতা মঙ্গেশকরের তুলনা করে ও তাঁকে লতাকন্ঠি বলাতে বেজায় চটেছিলেন কিংবদন্তি গায়িকা। বেশ কিছু মন্তব্য করতেও দেখা যায় লতা মঙ্গেশকরকে। কিন্তু তাতেও কিছুই হয়ত যায় আসেনি রাণুর। গতকাল আবারও নিজেকে লতা মঙ্গেশকরের ছাত্রী বলে সম্বোধন করেছেন তিনি।

গতকাল তিনি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন,”লতাজির বয়স আমার থেকে অনেক বেশি। সেই অনুযায়ী আমি ওনার থেকে অনেক ছোট। তাই তাঁর সঙ্গে কোনও তুলনা হয়না, সারাজীবন আমি তাঁর জুনিয়র থাকব, ওনার গলার স্বর ছোটবেলা থেকে শুনছি। খুবই ভালো লাগে আমার।” রাণাঘাটের স্টেশনে লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া গান ‘এক পেয়্যার কা নাগমা হ্যায়’ গেয়ে জনপ্রিয় হন রাণু মন্ডল। তারপরেই নানা সাক্ষাৎকার ও মিডিয়ার কভারেজের জেরে হিমেশের নজরে আসেন তিনি। তারপরেই হিমেশের আগামী সিনেমাতে গান গেয়েছেন রাণু।

কিছুদিন আগেই লতা মঙ্গেশকরকে রাণু মন্ডল সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, ”আমার নাম নিয়ে কেউ যদি ভালো কাজ করেন তাহলে আমি খুবই খুশি হব। এই বিষয়ে আমি নিজেকে ভাগ্যবাণ মনে করি। তবে আমার এটা মনে হয় আসল ও নকলের মধ্যে বিশাল পার্থক্য থাকে। আমার গাওয়া গান কিংবা কিশোর দা কিংবা রফি সাহেবের গাওয়া গান গেয়ে কেউ সারাজীবন বিখ্যাত হতে পারে না। এটা কিছুদিনের চমক হিসাবে রয়ে যায়।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here