kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, জলপাইগুড়ি: কয়েক দিন আগে দুই নাবালিকাকে অপহরণ করে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল প্রতিবেশী পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে। গণধর্ষণের শিকার ওই দুই নাবালিকা অপমানে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে একজনের মৃত্যু হয়। ঘটনাটি ঘটেছিল জলপাইগুড়ি জেলার রাজগঞ্জের সন্ন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের নবগ্রামে। ওই দুই নির্যাতিতার বাড়ি এসে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করার পর বিতর্কিত মন্তব্য করলেন বিজেপি মহিলা  মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল।

নাম না করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে অগ্নিমিত্রা পাল বলেন, ‘মহিলাদের ধর্ষণের রেট বেঁধে দিচ্ছেন। বিবাহিত মহিলা ধর্ষণের শিকার হলে ২০ হাজার টাকা, আর অবিবাহিত মহিলা ধর্ষণের শিকার হলে বোধহয় ২৫ টাকা দেওয়া হয়। ধর্ষণ থামাবার চেষ্টা করছেন না। শাস্তি দেওয়ার চেষ্টা করছেন না। বিচার দেওয়ার চেষ্টা করছেন না। তার বদলে ভাঙা সাইকেল দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। কী হবে ভাঙা সাইকেল নিয়ে? উনি ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন। বয়স হয়েছে। এবার রিটায়ারমেন্ট নিন। কোনও চিন্তা করার দরকার, নেই আমরা সোনার বাংলা গড়ব।‘

উল্লেখ্য, গত ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার নাবালিকা দুই বোন কাকার বাড়ি থেকে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় পথ থেকে পাঁচ যুবক তাদের তুলে নিয়ে যায়। তাদেরকে পাশের একটি চা বাগানে নিয়ে গিয়ে বলপূর্বক ধর্ষণ করে। দু’দিন নিখোঁজ থাকার পর শনিবার বাড়ি ফিরলেও ফের নিখোঁজ হয়ে যায় তারা। রবিবার দু’জনেই ফের অসুস্থ অবস্থায় বাড়ি ফেরে। জানা যায় তারা বিষ খেয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসার জন্য দ্রুত তাদের উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই এক নাবালিকার মৃত্যু হয়। আর এই ঘটনা নিয়ে আসরে নেমেছে বিজেপি।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here