নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁচল: বছর ঘুরতেই ফের বন্যার ভ্রুকুটি মালদার বুকে। গত সপ্তাহে লাগাতার তিন-চার দিনের বৃষ্টিতে উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি ও আলিপুরদুয়ার জেলার বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছিল। সেই জল এবার নামতে শুরু করেছে নীচের দিকেই। তার জেরে গত কয়েকদিন ধরেই ক্রমশ জল বাড়তে শুরু করেছিল মহানন্দা ও ফুলহার নদীতে। রবিবার সকালে ফুলহার নদীর জলেই প্লাবিত হল জেলার চাঁচল মহকুমার রতুয়া-১ ব্লকের বিস্তীর্ন অসংরক্ষিত এলাকা। যার জেরে প্রায় আট হাজার মানুষ জলবন্দি হয়ে পড়েছেন বলে জেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি কয়েকশো হেক্টর কৃষিজমি ও আমবাগান চলে গিয়েছে জলের তলায়। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে শুরু করেছে জেলা প্রশাসন। ত্রাণ বিলিরও ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

উত্তরবঙ্গে ভারী বর্ষা হওয়ায় গত বেশ কয়েকদিন ধরেই জল বাড়ছিল ফুলহারে। ফুলফেঁপে উঠছে মহানন্দাও। তবে এদিন ফুলহারের জল ব্যপক হারে বাড়ায় রতুয়া-১ ব্লকের বিস্তীর্ন অসংরক্ষিত এলাকা যেমন রতুয়া, সূরজাপুর, বিলইমারী, কাহাল্‌ মহনন্দাটোলা সহ অনান্য অঞ্চল জলের তলায় চলে যায়। ফলে নিজেদের ভিটেমাটি, জমি বাগান ছেড়ে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। যদিও প্রায় প্রতি বছরই এভ