মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হারলেও আরও কিছুদিন ভারতীয় দলের প্রধান কোচের পদে থাকছেন রবি শাস্ত্রী। ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত তাঁর সঙ্গে চুক্তি ছিল বিসিসিআইয়ের। কিন্তু তাঁর চুক্তির মেয়াদ আরও ৪৫ দিন বাড়ানো হয়েছে। একই ভাবে মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে বোলিং কোচ ভরত অরুণ ও ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধরেরও। কিন্তু খুব সম্ভবত চাকরি যেতে চলেছে ভারতের ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারের। তাঁর পারফরম্যান্স নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট নয় বোর্ড।

শেষ দেড় বছরে ভারতীয় বোলিংয়ে আমূল পরিবর্তন এসেছে। ভারতীয় বোলিং লাইন আপের বিশ্বকাপেও পারফরম্যান্স অত্যন্ত ভাল। এর জন্য অবশ্যই বোলিং কোচ ভরত অরুণের প্রশংসা প্রাপ্য। অন্যদিকে, ভারতীয় ফিল্ডিং সাইডও এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা। ফলে ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধরণের ওপরও বেশ খুশি বোর্ড কর্তারা। কিন্তু ভারতের ব্যাটিং কোচ তথা সহকারী কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারের ওপর মোটেও প্রসন্ন নয় বিসিসিআই। এর প্রধান কারণ এতদিনেও দলের চার নম্বর ব্যাটসম্যানদের জায়গা চূড়ান্ত না করতে পারা।

সর্বভারতীয় এক সংবাদসংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিসিসিআইয়ের এক কর্তা জানিয়েছেন, বারংবার মিডল অর্ডার পরিবর্তনের ফলে বারবার ধাক্কা খেয়েছে ভারতীয় দল। এর প্রতিকার খুঁজে পাননি সঞ্জয় বাঙ্গার। এছাড়া বাঙ্গারই জানিয়েছিলেন বিজয় শঙ্কর ফিত। অথচ তিনি চোটের কারণে বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে যান। এই ব্যাপারটি নজর এড়ায়নি বোর্ডের। এছাড়া দলের ম্যানেজার সুনীল সুব্রহ্মণ্যমের ওপরও অসন্তুষ্ট বিসিসিআই। তাঁর আচার ব্যবহার ও ক্ষমতার অপপ্রয়োগের জন্য তাঁকেই সরিয়ে দিতে পারে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

প্রসঙ্গত, গত অস্ট্রেলিয়া সফরে পার্থ টেস্টের সময় অস্ট্রেলিয়া দলের ম্যানেজার অ্যাডাম ফ্রেসারের সঙ্গে খাবার নিয়ে তর্কাতর্কিতে জড়িয়েছিলেন সুব্রহ্মণ্যম। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জয়ের পর ভারতীয় দলের সেলিব্রেশনের জন্য বরাদ্দ সামগ্রীর উদ্বৃত্ত অংশও সরিয়েছিলেন তিনি। ফলে তাঁকে এবার ছেঁটে ফেলার পথে ভারতীয় বোর্ড।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here