kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: নিজের হারানো জমি পুনরুদ্ধার করার লক্ষ্যে এই মুহূর্তে উত্তরবঙ্গ সফরে আছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চার দিনের সফরের আজ তৃতীয় দিন। গত দু’দিন বেশ কয়েকটি সরকারি কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার পর আজ আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ডে কর্মী সভায় যোগদান তৃণমূল নেত্রী। সেখানে তিনি দলত্যাগী তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশে আবারও নিশানা করেন। তিনি বলেন, যারা ভোগী তারা ছেড়ে যাচ্ছে। যারা প্রকৃত কর্মী তারা ছেড়ে যাবে না।

​গতকালের সভায় চা বাগান ইস্যু নিয়ে বিজেপিকে তোপ দেখেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, ভোটের আগে বিজেপি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বন্ধ চা বাগান খুলবে বলে। ভোট মিটে যাওয়ার পর তারা পালিয়ে যায়। উল্টে আমরা ৯টি বাগান খুলেছি। চা শ্রমিকদের জন্য তার সরকার কী কী করেছে, এদিনের সভায় আর একবার তা তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

​বিজেপিকে তোপ দেখে তিনি বলেন, এই সরকার রেল, ভেল সব বেছে দিচ্ছে। আজ ব্যাংক-বিমা সব বেসরকারিকরণ করে দিচ্ছে। তেলের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। এই বিজেপিকে বিদায় দিন। এরা দেশ বেচে দেবে।

​এরপর তিনি বিজেপিকে নিশানা করে বলেন, আমরা চাই শান্তি, ওরা চায় দাঙ্গা। আমরা চাই কর্মসংস্থান, ওরা চায় কর্ম সংকোচন। সারা ভারতে আজ ৪০ শতাংশ বেকারত্ব বেড়েছে। বাংলায় এত বাড়েনি। আমরা গরিব সরকার ঠিকই। কিন্তু আমরা মানুষের বিরুদ্ধে কিছু কাজ করি না। জ্বালানি তেলে ফের সেস বসিয়েছে। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার মানুষের সরকার নয়। আমি রাজ্যের মেয়েদের জন্য কন্যাশ্রী-শিক্ষাশ্রী সহ অনেক প্রকল্প করেছি। ওর আরও পড়াশোনা করুক।

এদিনের সভায় মুখ্যমন্ত্রী আগাগোড়াই নিশানা করেন বিজেপিকে। বিভিন্ন ইস্যু তুলে ধরে তিনি দাবি করেন বিজেপি জনগণের সরকার নয় বলে। এই সরকারকে বিদায় দেওয়ার দাবি জানান তিনি। একইসঙ্গে তিনি আবার নিজের সরকার বিগত দিনে কী কী করেছে, সে প্রসঙ্গ তুলে ধরে জনগণের কাছে আবেদন করেন তাঁর সরকারকে আবার ক্ষমতায় আনার জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here