news bengali

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা যোদ্ধার মৃত্যুতে পরিবারের সদস্যের জন্য চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে  ‘‌কমপেসিয়নেট গ্রাউন্ড’‌–এ চাকরি পাওয়ার নীতি শিথিল করল রাজ্য সরকার। একেবারে সামনের সারিতে থেকে লড়াই করা করোনা যোদ্ধা এমন সরকারি কর্মচারিদের মৃত্যু হলে এবার থেকে শুধু ছেলে কিংবা অবিবাহিত মেয়ে নয়, নিকট আত্মীয়রাও চাকরি পেতে পারবেন। আবেদনের ৩০ দিনের মধ্যে চাকরি দেওয়া হবে। আবেদনের সর্বোচ্চ সময়সীমা এক বছর। প্রয়োজনে নতুন পদ তৈরি করা হবে।

রাজ্য অর্থ দপ্তর থেকে বুধবার ‘‌দ্য ওয়েষ্ট বেঙ্গল স্পেশাল কমপেসিয়নেট অ্যাপয়েন্টমেন্ট (‌টু দ্য ডিপেন্টডেন্ট অফ কোভিড ওয়ারিয়র হু হ্যাড ডায়েড অর হ্যাজবিন পার্মানেন্টলি ইনক্যাপাসিটেটেড ডিউ টু কোভিড ১৯)‌‌ স্কিম, ২০২০’‌ শীর্ষক এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, সরকার অধিগৃহীত সংস্থার কর্মীদের পাশাপাশি সামনের সারিতে থাকা আশা কর্মী, স্বাস্থ্য কর্মী, জাতীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষা মিশনে যুক্ত চুক্তিভিত্তিক কর্মী, মেডিকেল, প্যারামেডিকেল এবং নার্সিংয়ের সঙ্গে যুক্ত চুক্তিভিত্তিক এবং আংশিক সময়ের কর্মী, চুক্তিভিত্তিক সাফাই কর্মী, ধোপা, ডায়েটিশিয়ান–সহ চিকিৎসা ব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত সব রকমের চুক্তিভিত্তিক কর্মী, সিভিক ভলিন্টিয়ার, সিভিক পুলিশ ভলিন্টিয়ার এবং বিভিন্ন সরকারি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত চুক্তিভিত্তিক, ক্যাজুয়াল, দৈনিক মজুরির ভিত্তিতে কাজ করেন এমন কর্মীদের পরিবারও এই সুযোগ পাবে।

২০২০ সালের ১ এপ্রিল থেকে এই নীতি কার্যকর হবে।
করোনা যোদ্ধাদের মৃত্যু হলে কিংবা কোনও কারণে আর চাকরি করার পরিস্থিতিতে না থাকলে তাঁর জায়গায় তাঁর ছেলে অথবা অবিবাহিত মেয়ে চাকরি পাবেন। যদি কারোর ছেলে, অবিবাহিত মেয়ে না থাকলে আইনত দত্তক নেওয়া ছেলে কিংবা অবিবাহিত মেয়েরা এ ক্ষেত্রে চাকরি পাওয়ার যোগ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here