নিজস্ব প্রতিবেদক,কল্যাণী: প্রাণভয়ে প্রায় দশ ঘন্টা কচুরি পানা ভর্তি পুকুরে লুকিয়ে ছিল বছর পঁয়তাল্লিশের দাঁড়া সিং নামে এক ব্যক্তি। মঙ্গলার এই ঘটনাটি ঘটে নদিয়া জেলার কল্যাণী মহকুমার চাকদহ থানার শিমুরালি সুতারগাছি স্টেশন রোডের পাশেই একটি পানা পুকুরে। ঘটনায় ওই ব্যক্তি উত্তর২৪ পরগনার কাঁচরাপাড়া মন্ডল বাজার এলাকার বাসিন্দা এছাড়া তিনি সাট্টা খেলার সঙ্গে জড়িত বলেও জানা যায়।

মঙ্গলবার নদিয়া জেলার চাকদা সুতারগাছি এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা হঠাৎ টের পায় পানা পুকুরের ভিতর থেকে একটি হাত নড়াচড়া করছে। এরপর এলাকার মানুষ চাকদহ থানায় খবর দেয়। চাকদা থানার পুলিশ এসে দাঁড়া সিং নামে ওই ব্যক্তিকে খুজে বের করতে ব্যর্থ হয়। তখন পুলিশের পক্ষ থেকে খবর দেওয়া হয় কল্যানীতে দমকলে। ঘটনায় দমকল এবং এলাকার মানুষের প্রচেষ্টায় উদ্ধার করা হয় দাঁড়া সিংকে। উদ্ধারের পর এলাকার মানুষেরা তাকে স্নান করিয়ে খাবার খাইয়ে প্রাথমিক ভাবে সুস্থ করে তোলে।

এদিনের ঘটনায় দাঁড়া সিং জানায়, তিনি কাঁচড়াপাড়ার গান্ধী মোড়ে সাট্টার প্যাড লেখার কাজ করত। সোমবার রাত দশটা নাগাদ খাবার খেতে কাঁচরাপাড়া প্লাটফর্মে আসে। সেই সময় তাকে দেখে চার-পাঁচ জন যুবক তার পিছু নেয়। ভয়ে তিনি আপ রানাঘাট গামী একটি ট্রেনে উঠে পড়ে। এরপর চাকদহ স্টেশনে নেমে রাত দুটো পর্যন্ত চাকদহ থানার সামনেই ঘোরাঘুরি করতে থাকে সে। পরে আবার চাকদহ স্টেশনে এসে ডাউন ফাস্ট লালগোলায় চেপে বসে সে। তারপর আবার শিমুরালি স্টেশন আসতেই পিছু নেওয়া যুবকদের সঙ্গে মুখোমুখি দেখা হয়। এরপর শিমুরালি স্টেশনে নেমে ওই যুবকেরা আবার তারা করে তাকে। তখনই প্রান ভয়ে পানাপুকুরে ঝাপ মারে। শেষে তাকে উদ্ধার করে এলাকার মানুষরাই চাকদহ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেয়। ঘটনায় তার বক্তব্য থেকে এমনাই জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here