নিজস্ব প্রতিবেদক, জলাপাইগুড়ি: শনিবার সকালে জলপাইগুড়ি ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে অভিযান চালায় বনদফতরের কর্মীরা। সেই সময় লাইট প্যাঙ্গোলিন নামে বিরল প্রজাতির একটি প্রানীকে উদ্ধার করে তারা। এছাড়াও উদ্ধার করা হয়েছে বিপুল পরিমান গাঁজাও। জানা গিয়েছে, গোপন সূত্রের খবর পেয়ে তারা এই অভিযান চালায়। শেষে গাঁজার প্যাকেট রাজগঞ্জ থানার হাতে তুলে দেয় এবং ওই প্রানীটিকে জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে বলেই জানান বনদফতরের কর্মীরা।

গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে শুক্রবার রাত থেকে অভিযান শুরু করেন বেলাকোবা বনদফতরের কর্মীরা। এরপর শনিবার সকালে জলপাইগুড়ি ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে অভিযান চালানোর সময় একটি গাড়িকে দেখে সন্দেহ হয় বনদফতরের কর্মীদের। তখনই গাড়িটিকে আটক করে তল্লাশি শুরু করেন তারা। সেই সময়ই ওই গাড়িতে থাকা আসামীরা পালিয়ে যায়, যার ফলে সন্দেহ আরও বাড়তে থাকে। শেষে গাড়িটি থেকে তিনটি ব্যাগ উদ্ধার করে বনদফতরের কর্মীরা। যার মধ্যে একটি স্কুল ব্যাগ থেকে উদ্ধার হয় লাইট প্যাঙ্গোলিন নামে প্রাণীটি এবং বাকি দুটি চটের ব্যাগ থেকে উদ্ধার করা হয় বিপুল পরিমান গাঁজা।

এদিনের ঘটনায় বেলাকোবা বনদফতরের রেঞ্জার সঞ্জয় দত্ত জানিয়েছেন, এটি খুবই বিলুপ্ত প্রায় একটি প্রানী। এটি দুর্লভও বটে। এটি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের মতই সিডিউল এক শ্রেনীর প্রাণী। অনুমান করা হচ্ছে শিলিগুড়ি হয়ে নেপালে পাচার করার উদ্দেশ্যেই এটিকে আসাম থেকে নিয়ে আসা হচ্ছিল। ঘটনায় এই প্রানীটিকে জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি। একই সঙ্গে তিনি বলেন,উদ্ধার হওয়া গাঁজার প্যাকেট গুলি রাজগঞ্জ থানার ওসির হাতে তুলে দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here