ডেস্ক: কেটে গিয়েও কাটতে চাইছে না মুর্শিদাবাদে বাস দুর্ঘটনার ভয়াবহতার রেশ। গতকাল ৩৬ জনের দেহ উদ্ধার হওয়ার পর আজ সকাল থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডুবুরিদের দিয়ে খোঁজ চালিয়ে আরও ৪ জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ফলে দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৪০ জন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখোঁজ যাত্রীদের বেশ কয়েকজন আত্মীয়স্বজন সকালে ভৈরব খালের ধারে ভিড় করেন। কিন্তু ভোর থেকে কুয়াশা থাকার ফলে উদ্ধার কার্য শুরু কররে দেরি হয় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর। জলের মধ্যে ১০টির মতো স্পিডবোট নামিয়ে কৃত্রিম তরঙ্গ তৈরি করার চেষ্টা চলছে। কারণ, জলের মধ্যে দৃশ্যমানতা একদমই নেই বললে চলে। ফলে ডুবুরিরা জলে নেমে কিছুই দেখতে পাচ্ছেন না। তাই ঢেউ তৈরি করে পাঁকে ডুবে থাকা দেহগুলিকে তুলে আনতেই এইভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

মোট ৩৬ জনের দেহ শনাক্ত করা হয়েছে এখনও পর্যন্ত। গতরাতে ৩৪টি দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ৫ জন নিখোঁজ। এনডিআরএফ সমগ্র দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়ে উদ্ধারকার্য চালিয়ে যাচ্ছে। দুর্ঘটনাস্থানে রয়েছেন প্রশাসনের কর্তারা।

প্রসঙ্গত, গতকাল দৌলতাবাদে একটি ব্রিজের রেলিং ভেঙে ভৈরব খালে পড়ে যায় বাসটি। সেইসময় বাসে প্রায় ৫০ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা। সরকারি তরফে এখনও ৪০ জনের দেহ উদ্ধারের খবর জানানো হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here