জোট সরকারের পতন রুখতে ফের রিসর্টে বিধায়করা! মেপে পা ফেলতে চাইছে বিজেপি

0
114
kolkata

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দক্ষিণের রাজনীতিতে রাজনৈতিক নাটক অব্যাহত। একযোগে জোট সরকারের ১৬ জন বিধায়ক ইস্তফা দেওয়ায় আসল টলমল করছে কুমারস্বামীর। সুযোগ বুঝে সরকার গঠনের সবরকম অগ্রিম প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে বিজেপি শিবির। তবে ঘোড়া কেনাবেচার চেষ্টা করেও গতবার তা সফল না হওয়ায় এবার আর আগে থেকে ঝাঁপাতে চাইছে না গেরুয়া বাহিনী। অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণেই ধীরে চলো গতি নিয়ে তারা দেখতে চাইছে, কী পদক্ষেপ নেয় কংগ্রেস-জেডিএস জোট। তারপরই কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হবে তাদের তরফে।

এই বিষয়ে এদিন কর্ণাটকের বিজেপি প্রধান বিএস ইয়েদুরাপ্পাকে জিজ্ঞেস করা হয়, সরকারের এই সংকটময় অবস্থায় তারা কী ভাবছেন। উত্তরে ইয়েদুরাপ্পা বলেন, ‘ওয়েট অ্যান্ড সি।’ অর্থাৎ অপেক্ষা করেই দেখুন। তিনি আরও যোগ করেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী বা সিদ্দারামাইয়া কী বলেছেন তা নিয়ে কোনও মন্তব্য আমি করব না। তাদের সঙ্গে আমার কোনও সম্পর্ক নেই। আমি খালি বলতে চাই, অপেক্ষা করেই দেখুন কী হয়।’ তাঁর এই মন্তব্য যে নতুন করে রাজনৈতিক আলোড়ন সৃষ্টি করবে তা বলাই বাহুল্য। কারণ গতকালই বিজেপির এক অসমর্থিত সূত্রে দাবি করা হয়েছিল, সরকার উল্টে গেলে দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত বিজেপি। এবং তাদের প্রার্থী হবেন ইয়েদুরাপ্পাই। যদিও এই নিয়ে কর্ণাটক বিজেপির সুপ্রিমো নিজে মুখে কুলুপ এঁটে রয়েছেন।

এই সবের মাঝে ফের একবার জোট সরকারের ত্রাতা হিসেবে অবতীর্ণ হওয়ার চেষ্টা করেছেন ডি শিবকুমার। তাঁর নির্দেশেই কংগ্রেসের দলত্যাগী বিধায়কদের ফের একবার মুম্বইয়ের ‘রিসর্টে’ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর। এর আগেও একাধিকবার তাঁর রিসর্ট রাজনীতি কংগ্রেস-জেডিএস সরকারের পতন রুখেছে। ফের একবার তিনি সফল হতে পারেন কিনা সেটাই দেখার। তবে এই রাজনৈতিক টানাপড়েন নিয়ে চুপ করে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী। গতকাল আমেরিকা থেকে ফেরার পর সোজা বেঙ্গালুরু ছুটে গিয়েছেন তিনি। বৈঠক করেছেন ডি শিবকুমার সহ এইচ ডি দেবেগৌড়ার সঙ্গেও। দক্ষিণী রাজনীতির ‘চাণক্য’ শিবকুমার যদিও আশা করছেন দলত্যাগী বিধায়করা ফিরে আসবেন। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই কার্যত স্পষ্ট হয়ে যাবে কোন দিকে এগোচ্ছে কর্ণাটকের রাজনীতি।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here