ডেস্ক: নীরব মোদী বিদেশে পালিয়ে গেলেও, সিবিআইয়ের জালে ধরা পড়েছেন রোটোম্যাক কোম্পানির বিক্রম কোঠারি। ধরা পড়ে তাঁর দাবি যে তিনি নিয়মিত শোধ করছেন।

সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, তল্লাশি চলাকালীন সিবিআইয়ের মুখোমুখি হয়ে কোঠারি বলেন, ”হ্যাঁ, ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নিয়েছি। কিন্তু সেই ঋণ আমি শোধ করিনি এমন কথা সম্পূর্ণ মিথ্যে। আমি কানপুরেই রয়েছি। কোথাও পালাচ্ছি না।” সম্প্রতি ৮০০ কোটির জালিয়াতির তথ্য প্রকাশ্যে আসার পর এমন খবর শোনা গিয়েছিল, নীরব মোদীর কায়দায় দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন কোঠারিও। কিন্তু পরে জানা যায়, দেশেই রয়েছেন তিনি। সকাল থেকেই কানপুরের তিনটি বাড়িতে হানা দেয় সিবিআই। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে কোঠারির স্ত্রী ও ছেলেকে। যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি বলে জানিয়েছে সংবাদসংস্থা পিটিআই।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কোঠারিকে ওই বিপুল টাকা ঋণ দিয়েছে এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক, ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, ব্যাঙ্ক অব বারোদা, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক এবং ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক। ইউনিয়ন ব্যাঙ্কের ম্যানেজার পিকে অবস্থী বলেন, তাঁর ব্যাঙ্ক থেকে বিক্রম কোটারিয়ার ঋণ ছিল ৪৮৫ কোটি টাকা। তাঁর বিরুদ্ধে এনসিএনটি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের কাজ চলছে। সঙ্গে তাঁর সম্পত্তি বিক্রয়ের প্রস্তুতিও চলছে। একইসঙ্গে এই ব্যবসায়ী ৩৫২ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিলেন ইলাহাবাদ ব্যাঙ্ক থেকে। সেই ব্যাঙ্কের ম্যানেজার রাজেশ কুমার গুপ্তা বলেন ঋণ শোধ না হলে কোটারিয়ার সম্পত্তি বেচে আদায় করা হবে ঋণের টাকা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here