bengali news

 

মহানগর ডেস্ক: সাড়ে তিনমাসে ১৬৮ কোটি টাকা গিয়েছিল কয়লা পাচারকাণ্ডে সদ্য গ্রেফতার হওয়া আইসি অশোক মিশ্রের কাছে৷ তাঁর হাতফেরি হয়েই এই বিপুল পরিমাণ কালোটাকা যেত অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা নারুলা ও তাঁর বোন মেনকা গম্ভীরের অ্যকাউন্টে৷ এভাবেই একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল ইডি-র রিপোর্টে৷ কয়লাকাণ্ড নিয়ে আদালতে এহেন চোখ কপালে তোলা তথ্য পেশ করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি৷ দিল্লিতে বিশেষ আদালতে জমা পড়া ইডি-র এই রিপোর্টে উঠে এসেছে তৃণমূল কংগ্রেসের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড সাংসদ অভিষেক ও তাঁর স্ত্রী রুজিরা এবং শ্যালিকা মেনকার নাম৷

কীভাবে বাঁকুড়া থানার আইসি অশোক মিশ্রের ভায়া এই টাকা রাজ্যের শাসকদলের সর্বোচ্চ ডেরায় পৌঁছয় বা পৌঁছত, তারও বিস্তারিত বিবরণ রয়েছে ওই রিপোর্টে৷ সেসব নথি-প্রমাণ আদালতে জমা দিয়েছেন ইডি-র তদন্তকর্তারা৷ গতকাল আদালতে জমা পড়া নথিতে বলা হয়েছে, আইসি অশোক মিশ্রের ব্যাঙ্ক অ্যকাউন্টে মাত্র ১০৯ দিনে জমা পড়েছে কয়লা পাচারের ১৬৮ কোটি টাকা৷

গতবছর জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই পাহাড়প্রমাণ টাকা লেনদেন হয়েছিল৷ দিন চারেক আগেই ইডি গ্রেফতার করে পুলিশ অফিসার অশোক মিশ্রকে৷ এই প্রথম এই মামলায় কোনও পুলিশ গ্রেফতার হল৷ এর আগে গ্রেফতার হয়েছে তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রের ভাই বিকাশ মিশ্র৷ আর সুপ্রিম কোর্টের রক্ষাকবচ নিয়ে চারদফায় ইডি ও সিবিআই-এর জেরার মুখে পড়েছে পুরুলিয়ার মাফিয়া অনুপ মাঝি ওরফে লালা৷ সুতরাং তার মাথার ওপরেও গ্রেফতারের খাঁড়া ঝুলছে৷ যে কোনও সময় এই কালো ব্যবসায়ীকেও শ্রীঘরে যেতে হতে পারে৷ মাত্র দুদিন আগেই তার ১৬৬ কোটি টাকা মূল্যের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here