kolkat bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: অচলাবস্থা চলছে সংসদের অন্তরে ধরনায় বসেছেন বিরোধী সাংসদরা। বিরোধীদের অনুপস্থিতিতেই একের পর এক বিল পাস হয়ে যাচ্ছে রাজ্যসভায়। কৃষক বিলের মতই বুধবার লেবার কোড বিল পাস হয়ে গিয়েছে সংসদের দুই কক্ষে। তড়িঘড়ি এই বিল পাসের বিরুদ্ধেই এবার সরব হয়ে উঠলো আরএসএসের শ্রমিক সংগঠন (বিএমএস)। এই সংগঠনের জেনারেল সেক্রেটারি পবন কুমার এদিন সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘যেভাবে তিনটি শ্রমিক বিল সংসদে পাস করানো হল তার ঘোর বিরোধিতা করছি আমরা।’

এই সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পবন কুমার বলেন, ‘অত্যন্ত তাড়াহুড়ো সঙ্গে শ্রমিক সংক্রান্ত তিনটি বিল পাস করানো হয়েছে সংসদে। এটা কোনোভাবেই ঠিক নয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনও আলোচনাই হয়নি। আমাদের গুরুত্বপূর্ণ দাবিগুলো মানা হয়নি সরকারের তরফে। আমাদের দাবি ছিল সামাজিক সুরক্ষা কোডের ভিত্তিতে সমস্ত শ্রমিকদের সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত ও বাস্তবায়িত করা। দেশের সমস্ত শ্রমিকের সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করাটা সরকারের সিদ্ধান্ত হওয়া উচিত। কিন্তু সরকার সেটা করেনি।’ তিনি আরো বলেন আমরা সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছিলাম যে ‘কোড অন্ড অকুপেশনাল সেফটি’তে যে সুরক্ষার কথা বলা হয়েছে কর্মীদের জন্য সেটাও বাস্তবায়িত করা হোক। কিন্তু যে বিল পাশ করা হলো সেখানে এই সুরক্ষা শুধুমাত্র সেই সমস্ত কর্মীদের দেওয়া হবে যে সংস্থায় ১০ কিংবা দশের বেশি শ্রমিক কাজ করেন।

সদ্য পাস হওয়া শ্রমিক বিলের বিরুদ্ধে আরএসএসের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ‘যে বিল পাস হয়েছেতার প্রেক্ষিতে ভারতীয় শ্রমিক সংঘের কড়া বিরোধিতার মুখে পড়তে হবে সরকারকে।’ দাবি করা হয়েছে সোশ্যাল সিকিউরিটি কোড বিলের মাধ্যমে ESIC ও EPFO সংক্রান্ত সমস্ত সুবিধা দেশের প্রত্যেকটি কর্মীর পাওয়া উচিত। কিন্তু সরকার আমাদের এই দাবি মানেনি পাস হওয়া ওই বিলে।’ এরপর আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়ে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ‘২ থেকে ৪ অক্টোবর তিন দিনের একটি ভার্চুয়াল কনফারেন্স করবে শ্রমিক সংগঠন যেখানে অংশগ্রহণ করবেন তিন হাজার শ্রমিক। এই বৈঠকের পর সরকারের বিরুদ্ধে আগামী রণনীতি ঠিক করবে আরএসএসের শ্রমিক সংগঠন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here