মহানগর ওয়েবডেস্ক: এ যে দেখি ভুতের মুখে রামনাম! না হলে যিনি মেয়েদর লিভ ইন সম্পর্ক মানতে পারেন না, তিনি কিনা নারী স্বাধীনতা নিয়ে কথা বলছেন! তা এহেন মোহনের বাণী, মেয়েদের হয়ে যে কোনও সিদ্ধান্ত যেন কোনওভাবেই পুরুষরা না নেয়৷ সম্প্রতি রাজস্থানে আরএসএসের সমন্বয় বৈঠকে মহিলাদের প্রতি গুরুত্ব আরোপের সিদ্ধান্ত হয়। সেই সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিতেই ভগবতের ভোলবদল বলে মনে করা হচ্ছে।মহিলাদের সম্পর্কে নানান মন্তব্য করে এর আগে বিতর্ক বাড়িয়েছেন আরেসএস প্রধান মোহন ভগবত। এবার তাঁর মুখেই নারী ক্ষমতায়নের কথা। মোহন ভাগবতের কথায়, নারীর হয়ে পুরুষদের কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়। উল্টে নারীদের বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করা উচিত পুরুষদের।

নারীর ক্ষমতায়ন শীর্ষক আলোচনায় এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন ভাগবত। সেই অনুষ্ঠানেই হাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। সেখানেই, মোহনবাণী , ‘নারীর হয়ে পুরষদের সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়। পুরষরা যেন কখনওই মনে না করেন যে তাদের বুদ্ধি নারীদের থেকে বেশি। নারীদের নিজেদের হয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে।’ এরপরই নারীদের মাল্টি টাস্কার সম্বোধন করে তাঁর সংযোজন, ‘আমরা ভুলে যাই যে মহিলারা মাল্টি টাস্কার। যারা সংসার সামলায় তারা সব কিছুই ভালভাবে সামলাতে পারেন।’ তাঁর মতে, ‘প্রকৃতি পুরষদের শক্ত কাজ করার শক্তি দিয়েছে, কিন্তু তারা মহিলাদের মতো কাজ পরিচালনা করতে পারেন না।’ উল্লেখ্য এই মোহনই ২০১৩ সালে ইন্দওরে এক জনসভায় তাঁর বক্তব্য ছিল স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক চুক্তি ভিত্তিক৷ স্ত্রী পরিবরাকে দেখার বদলে স্বামীর কাছ থেকে ভরণ পোষণ পান৷ সম্প্রতি তিনি লাভ জিহাদি নিয়ে সরব হতে গিয়ে বলেছেন লিই ইন নয়, মহিলাদের বিয়ে করা উচিত৷

মহিলাদের সম্পর্কে হঠাৎ কেন তাঁর চিন্তার বদল? সম্প্রতি রাজস্থানে আরএসএসের সমন্বয় বৈঠকে মহিলাদের প্রতি গুরুত্ব আরোপের সিদ্ধান্ত হয়। বিশেষ করে আদিবাসী মহিলাদের ক্ষমতায়নের জন্য সংগঠন বেশি করে কাজ করবে৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ বলেন, ‘সমাজের সর্বক্ষেত্রে মহিলাদের প্রতিনিধিত্ব বাড়ছে। সংরক্ষণ করে উপকার মিলেছে। কিন্তু, কেউ যেন বলার সুযোগ না পান যে মহিলা বলে বিশেষ সুবিধার ভিত্তিতে নির্দিষ্ট পদে রয়েছেন কেউ’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here