bhagwat

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মহারাষ্ট্রের পালঘরে গণপিটুনিতে দুই সাধু হত্যার ঘটনায় এবার গর্জে উঠলেন সংঘ প্রধান মোহন ভাগবত। এদিন নাগপুর থেকে কর্মীদের উদ্দেশে অনলাইনে এক বক্তব্য রাখার সময় এই ঘটনার প্রেক্ষিতে কথা বলতে গিয়ে পুলিশ ও প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। সমাজে এই ধরনের হিংসার কোনও স্থান নেই বলে মন্তব্য করেন। এরূপ ঘটনা এড়াতে প্রশাসনের ভূমিকাই যে সবথেকে বড় তাও মনে করিয়ে দেন শ্রীভাগবত।

রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের চালক বলেন, ‘যেই সাধুরা অন্যের মঙ্গল কামনা করেন তাদের নৃশংসভাবে হত্যা করা হল পালঘরে। পুলিশ সেই সময় কী করছিল? বিষয়টি নিয়ে রাজনীতিও হচ্ছে। এটা কি আদৌ হওয়া উচিত, নাকি এই ধরনের ঘটনা কাম্য? এই বিষয়গুলো নিয়ে ভাবার সময় এসেছে। যারা এই কাজ করেছে তারা উগ্রপন্থী। আগামী ২৮ এপ্রিল ওই দুই সাধুকে আরএসএস-র তরফে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এদিনের ভিডিও বার্তায় দেশে বাড়তে থাকা করোনার সংক্রমণ এবং পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলা তাবলিঘি জামাতের প্রতি জনগণের তথাকথিত চিন্তাভাবনা নিয়েও দেশবাসীকে সতর্ক করেন ভাগবত। তাঁকে বলতে শোনা যায়, ১৩০ কোটি দেশবাসীর প্রত্যেকেই ভারতের সন্তান এবং আমাদের ভাই-বন্ধু। তাই কারোর জন্য যেন মনে ভয় বা রাগের কোনও জায়গা না থাকে। যদি কেউ ভয় বা রাগ থেকে কিছু ভুল করে থাকেন তবে গোটা তার জন্য গোটা সম্প্রদায়কে দূরে ঠেলে দেওয়া উচিত না। বস্তুত তাবলিঘি জামাতের নাম না করেই এই বার্তা দিয়ে দেন সংঘ প্রধান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here