মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে ইতিমধ্যেই দিশেহারা গোটা বিশ্ব। এরই মাঝে নতুন করে মহামারীর আশংকা। কিছুদিন আগেই চিনে ধরা পড়েছে বিউবনিক প্লেগ। কিছুদিনের মধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে অনেকটাই। করোনাভাইরাসের পাশাপাশি এই রোগ নিয়ে আশঙ্কা ক্রমশই বাড়ছে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই রোগ ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছে রাশিয়াতেও! ফলে ভাইরাস আতংকের মাঝেই প্লেগের আতংকে জর্জরিত বিশ্ববাসী।

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই চীন এবং মঙ্গোলিয়ার সীমান্ত টপকে রাশিয়ায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এই প্লেগ। রাশিয়া সীমান্তের একাধিক অঞ্চলে ইতিমধ্যেই ইঁদুর জাতীয় প্রাণীর উপর পরীক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছে। এইসব প্রাণীদের মধ্যে কেউ এই প্লেগের জীবাণু বহন করছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রাথমিক পর্যায়ে একাধিক পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসার পরেও স্বস্তি পাচ্ছে না রাশিয়া প্রশাসন। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এই রোগের ক্ষেত্রেও কড়াকড়ি করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাসের আঁতুড়ঘর চিনে এই প্লেগে আক্রান্তের খবর মেলে গত শনিবার। তারপরই সর্তকতা জারি করা হয় স্থানীয় প্রশাসনের তরফে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, যেভাবে ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে মানুষের মধ্যে এই সময় প্লেগ মহামারীও জাঁকিয়ে বসতে পারে। সেই প্রেক্ষিতে সকলকে সতর্ক হতে বলা হয়েছে। অনুমান করা হচ্ছে, ভাইরাস সংক্রমণের ফলে বেশিরভাগ মানুষের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে এই রোগ আরও দ্রুত শরীরে থাবা বসাতে পারে। প্রসঙ্গত, এই প্লেগ ভয়ানক ব্যাকটেরিয়া ঘটিত রোগ। প্রধানত ইঁদুর জাতীয় প্রাণী দের থেকে এই রোগ ছড়ায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, সঠিক চিকিৎসা না হলে এই রোগে আক্রান্ত যেকোনো রোগী ২৪ ঘন্টার মধ্যে মারা যেতে পারে।

করোনা ভাইরাস, বিউবনিক প্লেগের পাশাপাশি চীন থেকে শুরু হওয়া আরও এক রোগ নিয়ে আশঙ্কা বিশ্ববাসীর, তাহলে সোয়াইন ফ্লু। কিছুদিন আগে এই রোগের নতুন ভাইরাসের খোঁজ মিলেছে চিন থেকেই। এক্ষেত্রেও আশঙ্কা করা হয়েছে, সঠিকভাবে পরীক্ষা না করা হলে সোয়াইন ফ্লু থেকেও মহামারী হতে পারে। অতএব, এই মুহূর্তে করোনাভাইরাস ছাড়াও একাধিক রোগ যে যথেষ্ট চিন্তার কারণ তা কার্যত স্বীকার করে নিচ্ছেন বিজ্ঞানী এবং গবেষকরা। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here