news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আগামী ১২ আগস্ট রেজিস্টার করা হবে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন, সম্প্রতি এমনটাই জানিয়েছিলেন রাশিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ওলেগ গ্রিডনেভ। আর এবার এই ভ্যাকসিন কীভাবে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়বে, তা জানালেন নির্মাণকারী সংস্থার প্রধান।

রাশিয়ায় করোনার এই ভ্যাকসিন তৈরি করেছে গ্যামেলিয়া ন্যাশানাল রিসার্চ সেন্টার। স্পুটনিক নিউজ এজেন্সিকে ওই সংস্থার প্রধান আলেকজান্ডার গিন্সবার্গ জানান, যে পার্টিকেল দিয়ে এই ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে তা মানব শরীরের কোনও ক্ষতি করে না। যদিও এই নিয়ে দ্বিমত পোষণ করেছেন রাশিয়ারই এক ভাইরোলজিস্ট।

ভেক্টরের সংক্রামিত রোগ বিভাগের প্রধান আলেকজান্ডার চেপুর্ণভ জানান, যাদের শরীরে সার্স-কোভ-২ এর বিরুদ্ধে এন্টিবডি তৈরি হয়ে গিয়েছে তাদের জন্য এই ভ্যাকসিন বিপজ্জনক হতে পারে। এই ভ্যাকসিন সম্পর্কে তথ্য খুব কম মানুষের কাছেই আছে। তাই বলা যাচ্ছে না এটা কতটা কার্যকর হবে। এটা আবার রোগের মাত্রা বাড়িয়েও দিতে পারে।

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগেই রাশিয়া জানিয়েছিল তাদের একটি ভ্যাকসিন প্রাথমিক ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে বেশ ভালো ফল করেছে। রাশিয়ার বার্ডেনকো হাসপাতালে মানুষের ওপর প্রয়োগও করা হয় এই ভ্যাকসিন। রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ওই পরীক্ষায় আশানুরূপ ফলাফল মিলেছে। আর সবচেয়ে বড় কথা এর কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি।

যদিও এই নিয়ে বেশ সন্দেহ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তাদের সাফ দাবি এই ভ্যাকসিন নিয়ে সরকারিভাবে তাদের কাছে কোনও তথ্যই নেই। এই প্রসঙ্গে হু’র মুখপাত্র ক্রিশ্চিয়ান লিন্ডমেইয়ার জানান, এরকম যেকোনও দাবি উঠলে আমরা সেই বিষয়ে বেশ সতর্ক থাকি। অনেক ক্ষেত্রেই বহু বিজ্ঞানী দাবি করেছেন তারা করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছেন। অবশ্যই এটা খুবই ভাল খবর। তবে কোনও ভ্যাকসিন পেয়ে যাওয়া আর সেটার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল সবরকম ভাবে হয়ে তাতে সফল হওয়ার মধ্যে বেশ অনেকটা পার্থক্য আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here