Home Latest News সুজিতের দলে থাকাই উচিৎ নয়, কেন বের করা হচ্ছে না? সব্যসাচী তোপে তটস্থ ঘাসফুল

সুজিতের দলে থাকাই উচিৎ নয়, কেন বের করা হচ্ছে না? সব্যসাচী তোপে তটস্থ ঘাসফুল

0
সুজিতের দলে থাকাই উচিৎ নয়, কেন বের করা হচ্ছে না? সব্যসাচী তোপে তটস্থ ঘাসফুল
Parul

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নির্বাচনের অনেক আগে থেকেই বিধাননগরের মেয়র তথা রাজারহাটের বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে ডামাডোল চলে তৃণমূল কংগ্রেসে। বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ, তাঁর গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ার জল্পনাকে প্রবলভাবে উস্কে দেয়। এই নিয়ে পরে সংবাদমাধ্যমে সাফাইও দিতে হয় সব্যসাচীকে। আর সুজিত বসুর সঙ্গে তাঁর দ্বন্দ্ব নিয়ে তো নতুন কিছু বলার নেই। সেই দ্বন্দ্বই এবার আরও বড়সড় আকার ধারণ করল। সুজিত বসুকে দল থেকে কেন বের করে দেওয়া হবে না, তাই নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সব্যসাচী!

বিধাননগরের মেয়রের বিধানসভাতে লোকসভায় ২৫ হাজার ভোটের লিড পেয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী। অন্যদিকে, সুজিত বসুর বিধানসভায় অন্তত ১৮ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে শেষ করেছেন বিজেপি প্রার্থী। এই বিষয় সামনে আসতেই তেড়েফুঁড়ে ওঠেন সব্যসাচী। তাঁর দাবি,

এই নির্বাচনে সুজিত বসু ডাহা ফেল করেছেন, তাঁকে এখনও দলে কেন রাখা হবে? সব্যসাচী বলেন, বারাসত কেন্দ্রে নিজেকে সর্বেসর্বা ভেবেছিলেন সুজিত, কিন্তু ভোট লিড দিতেই চরম ব্যর্থ তিনি। তাঁর বিধানসভায় বিজেপি প্রার্থী ১৮ হাজার ভোটে এগিয়ে শেষ করেছে। এরপর সুজিতের আর দলে থাকার কোনও অধিকারই নেই! তৃণমূলের উচিৎ তাঁকে দল থেকে বের করে দেওয়া।

সব্যসাচীর বক্তব্যের পাল্টা দিয়েছেন সুজিত বসুও। তাঁর কথায়,

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হলেন তাঁর নেত্রী। তিনি ছাড়া আর কে তাঁকে কী বলল তাই নিয়ে সুজিত ভাবতেই চান না। সুজিতের পাল্টা দাবি, সব্যসাচী নিজের ওয়ার্ড সহ বেশকয়েকটি ওয়ার্ডে পিছিয়ে ছিল।

বিগত কয়েক মাস ধরেই সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে চরমভাবে অস্বস্তিতে রয়েছে মমতার তৃণমূল কংগ্রেস। মুকুলের সঙ্গে সাক্ষাৎ, বাড়িতে লুচি-আলুরদম খাওয়া, পরবর্তী সময়ে দোলে ‘ভারত মাতা কী জয়’ স্লোগান, সবমিলিয়ে দলের রোষে পড়েছেন সব্যসাচী। এবার ভোটপর্ব মিটতেই সুজিত-সব্যসাচী সম্মুখসমর নিয়ে দল কী সিদ্ধান্ত নেয়, তার দিকে তাকিয়ে রাজ্যে রাজনৈতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here