অনাস্থার বিরুদ্ধে সব্যসাচীর মামলায় যুক্ত হবেন চেয়ারপার্সনও, শুনানি মঙ্গলবার

0
176

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মেয়রপদ হারাতে বসেছেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত। ইতিমধ্যেই তাঁর অনাস্থা প্রস্তাবে সাক্ষর করেছেন ৩৫ কাউন্সিলর। এই অনাস্থা প্রস্তাবের বিরুদ্ধে গিয়েই কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছেন মেয়র সব্যসাচী। তাঁরই শুনানিতে এদিন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি জানিয়ে দিলেন, এই মামলায় যুক্ত করতে হবে কর্পোরেশনের চেয়ারপার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তীকে। এবং এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী মঙ্গলবার।

বিধাননগরের মেয়রপদ থেকে সব্যসাচী দত্তকে সরাতে চেয়ে যে অনাস্থা আনা হয়েছে তাতে ইতিমধ্যেই সাক্ষর করেছেন তৃণমূলের ৩৫ জন কাউন্সিলর। তবে এই অনাস্থা নিয়ে একরাশ প্রশ্ন তোলেন সব্যসাচী। এই প্রক্রিয়াতে ভুল রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। ৮৯ পাতার ওই আবেদন পত্রের শুরুতেই তাঁর অভিযোগ, পুরসভার কমিশনারের বিশেষ বৈঠক ডাকার নোটিশের আইনি বৈধতা নিয়ে। সব্যসাচীর দাবি, ওই নোটিশ কোনওরকম ভাবনা চিন্তা করে লেখা হয়নি। পুরোপুরি যান্ত্রিক ভাবনা রয়েছে ওই চিঠিতে। তাঁর দাবি ওই নোটিশ খারিজ করা হোক। এর পাশাপাশি আরও বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে সব্যসাচীর দাবি, পুরসভায় কমিশনারের সাক্ষর সহ যে নোটিশ তাঁর কাছে আসে তাতে জাল সই রয়েছে। যুক্তি দিয়ে তিনি বলেন, ৯ জুলাই নোটিস দেন কমিশনার। কিন্তু গত ২৭ জুন থেকে ছুটিতে রয়েছেন তিনি। ছুটিতে থাকাকালীন কীভাবে নোটিসে সই করলেন কমিশনার? সই জাল নয়তো? এরপরই তাঁর দাবি, রাজ্যসরকার চক্রান্ত করে কাউন্সিলরদের দিয়ে সই করিয়েছে ওই নোটিশে।

এদিকে, ৯ জুলাই বিধাননগর কর্পোরেশনের কমিশনার আস্থা ভোটের বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিয়েছেন, ১৮ জুলাই হবে বোর্ড মিটিং। সেখানেই হবে সব্যসাচীর বিরুদ্ধে আনা অনাস্থার ভোটাভুটি। এর বিরুদ্ধে গিয়েই কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন সব্যসাচী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here