মহানগর ওয়েবডেস্ক; নয়ের দশকে ক্রিকেট ফ্যানদের কাছে চোখের আরাম ছিলেন শচীন তেন্ডুলকর ও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ক্রিকেট নস্ট্যালজিয়ার অংশ শচীন-সৌরভ।

ওয়ানডে ক্রিকেটে তাঁদের বিধ্বংসী ওপেনিং জুটি ছিল বাইশ গজের ত্রাস। সাবলীল ব্যাটে অবলীলায় ১৫ ওভারে স্কোরবোর্ডে ১০০-র বেশি রান তুলে দিতেন পারতেন তাঁরা।

১৭৬টি ওয়ানডে ম্যাচে ওপেন করে শচীন-সৌরভ ৮২২৭ রান করেছিল ৪৭.৫৫-এর গড়ে। আজ পর্যন্ত কোনও জুটি একসঙ্গে ৬০০০ রানও করতে পারেনি। কিন্তু মজার বিষয় হলো অধিকাংশ সময়ই শচীন কখনও প্রথম বল খেলেননি।

শচীন কেন প্রথম বল খেলতে চাইতেন না? বর্তমান বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভকে বোর্ডের লাইভ চ্যাটে এই প্রশ্নটাই করেছিলেন টিম ইন্ডিয়ার টেস্ট ওপেনার ময়াঙ্ক আগরওয়াল। এই প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ বলেন, ‘‘শচীন দুটো উত্তর নিয়ে প্রস্তুত থাকত। আমি ওকে বলতাম, আরে তুমিও তো কয়েক বার প্রথম স্ট্রাইক নিয়ে দেখতে পারো! শচীন মনে করত, ও যখন ভাল ফর্মে আছে তখন প্রথম বল না খেলাই শ্রেয়। আর ওর ফর্ম যখন ভাল থাকত না, ও ভাবত প্রথম বল খেললে চাপ বাড়তে পারত। ফলে দু ক্ষেত্রেই ও নন স্ট্রাইক এন্ডে থাকত।” সৌরভ জানিয়েছেন যে, দু’এক বার তিনি কোনও কথা না বলে নিজেই চলে গিয়েছিলেন নন স্ট্রাইক এন্ডে। ফলে তখন শচীন বাধ্য হয়েছেন প্রথম বল খেলতে।

ওয়ানডে ইতিহাসে শচীন-সৌরভ সর্বকালের অন্যতম সফল জুটি। তাঁদের নাম সোনার হরফে লেখা থাকত। তাঁরা ২৬ বার একশো রানের পার্টনারশিপ করেছেন ও ২৯ বার জুটি বেঁধে পঞ্চাশ বা তার বেশি রান যোগ করেছেন। ২০০১ সালে কেনিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ানডে ফরম্যাটে সর্বোচ্চ ২৫৮ রান করেন তাঁরা। কিছুদিন আগে সৌরভ জানিয়ে ছিলেন যে, নতুন যে নিয়মে খেলা হয় এখন, তখন সেই নিয়ম চালু থাকলে তাঁরা আরও চার হাজার রান বেশি করতে পারতেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here