ডেস্ক: কেরিয়ারে সাফল্য ছিল না খুব একটা। বেশ কয়েকছর পরপর ছবিগুলি ফ্লপ হয়েছিল। সমালোচনার মুখে ছিলেন তিনি। নাম রণবীর কাপুর। তবে চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন। পরিচালক রাজকুমার হিরানির কথা মেনে ‘সঞ্জু’ সিনেমার জন্য আলাদাভাবে নিজেকে সময় দিয়েছিলেন রণবীর। নিজেকে বড়পর্দায় হবহু সঞ্জয় দত্তের মতো দেখানোর জন্য কঠিন পরিশ্রম করেছিলেন তিনি। আর সেই প্রচেষ্টায় সফল হয়েছেন রণবীর। নিজের কেরিয়ারে সবচেয়ে বড় হিট তিনি দেখলেন ‘সঞ্জু’ সিনেমার মাধ্যমে। একসপ্তাহের মধ্যেই প্রায় ২০০ কোটির দরজায় হাজির হয়েছে ‘সঞ্জু’। এখন সেটা ১৬ দিনের মাথায় ৩০০ কোটির ঘরেও প্রবেশ করেছে বলে জানা গিয়েছে। যেটা রণবীরের এগারো বছরের সিনে কেরিয়ারে প্রথম।

তাছাড়াও এই সিনেমা সারা বিশ্বে ৫০০ কোটির ব্যবসাও করে ফেলেছে বলে সূত্র মারফত গতকাল জানা গিয়েছিল। বলিউডের সবচেয়ে বিতর্কিত চরিত্র হল সঞ্জয় দত্ত। তাঁর জীবনি নিয়ে সিনেমা বানানোর সাহসিকতা দেখিয়েছিলেন রাজকুমার হিরানি। তাতে সফলও হয়েছেন তিনি। তবে নানা বিতর্কের মাঝে সঞ্জয় দত্ত বক্তব্য রেখেছিলেন যে মাত্র ৩০-৪০ কোটি টাকা দিয়ে আমার ইমেজ কেউ ভালো বানাতে সিনেমা তৈরী করবে না। ইতিমধ্যেই দর্শকেরা ‘সঞ্জু’র এই সিনেমায় রণবীর ছাড়াও পরেশ রাওয়াল ও ভিকি কৌশালের অভিনয়ে মুগ্ধ। কার্যত বলাই যেতে পারে বক্স অফিসে বিরাট সাফল্য হিসাবে রণবীরের ‘সঞ্জু’।