bengali news

Highlights

  • উর্দু ভাষা এবার উত্তরাখণ্ড রেলওয়ে থেকে সম্পূর্ণরূপে মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল রেল কর্তৃপক্ষ
  • উত্তরাখণ্ড রাজ্যে রেল স্টেশনের ফলকে স্টেশনের নাম লেখা হয় তিনটি ভাষায় হিন্দি, ইংরেজি ও উর্দুতে
  • ২০১০ সালে উত্তরাখণ্ড রাজ্যে দ্বিতীয় সরকারী ভাষার মর্যাদা পেয়েছে সংস্কৃত

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নাম বদলের আড়ম্বরে দেশের মধ্যে নজির সৃষ্টি করেছিল যোগী রাজ্য উত্তরপ্রদেশ। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দৌলতে এই রাজ্য থেকে কার্যত একে একে মুছে যেতে থাকে সমস্ত মুসলিম সূচক নাম। সেই ধারা অব্যাহত রেখেই এবার আরও বড় সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল। মূলত মুসলিম সমাজে ব্যবহৃত উর্দু ভাষা এবার উত্তরাখণ্ড রেলওয়ে থেকে সম্পূর্ণরূপে মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল রেল কর্তৃপক্ষ। এমনটাই জানা গেল সংবাদমাধ্যম সূত্রে।

বর্তমানে উত্তরাখণ্ড রাজ্যে রেল স্টেশনের ফলকে স্টেশনের নাম লেখা হয় তিনটি ভাষায় হিন্দি, ইংরেজি ও উর্দুতে। কিন্তু রেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন থেকে সেখানে উর্দু তুলে দিয়ে লেখা হবে সংস্কৃত ভাষায়। সম্প্রতি এমনটাই জানা গেল এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে। কারণ হিসাবে অবশ্য প্রকাশ্যে এসেছে একটি তথ্য। ২০১০ সালে উত্তরাখণ্ড রাজ্যে দ্বিতীয় সরকারী ভাষার মর্যাদা পেয়েছে সংস্কৃত। আর সেই হিসাবেই ওই রাজ্যের স্টেশন থেকে উর্দু ভাষাকে সরিয়ে আনা হচ্ছে সংস্কৃত ভাষাকে। তবে এই বিষয়টিকে ধর্মীয় জায়গা থেকে না দেখে একটি রাজ্যের সরকারী ভাষার ভিত্তিতে দেখা উচিত। সেই জায়গা থেকেই রাজ্যের সরকারী ভাষার তালিকা অনুযায়ী স্টেশনের নাম হবে এটাই স্বাভাবিক। এমনটাই দাবি এক রেল আধিকারিকের। তবে এই বিষয়ে রেলের তরফে আনুষ্ঠানিক ভাবে এখনও কোনও কিছুই ঘোষণা করা হয়নি।

এদিকে আরও জানা গিয়েছে, নামের বানান ঠিক রেখে আপাতত সংস্কৃতে সঠিক ভাবে নাম লেখাই মূল চ্যালেঞ্জ রেলের কাছে। ইতিমধ্যেই নাকি তার প্রাথমিক খসড়া তৈরি করে ফেলেছে রেল। তবে এটা যে কঠিন একটা কাজ তা স্বীকার করে নিয়েছেন রেলের এক আধিকারিক। আপাতর সংস্কৃতে নজর রেখে উত্তরাখণ্ডে নয়া সাজে সেজে উঠছে রেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here