ডেস্ক: মতুয়া সংঘের বড়মা বীণাপাণি ঠাকুরের মৃত্যুর পরেও এখনও জিইয়ে রয়েছে ঠাকুর পরিবারের সংঘাত৷ বড়মার মৃত্যুর পরেই তদন্তের দাবি তুলেছিলেন তাঁর নাতি শান্তনু ঠাকুর৷ তিনি অভিযোগ করেছিলেন খুন করা হয়েছে বড়মাকে৷ আর এবার তিনি যে দাবি তুললেন তা আরোই বিস্ফোরক৷ এবার তিনি বড়মার মৃত্যুর জন্য সরাসরি দায়ী করলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে৷ তাঁর অভিযোগ, ঠাকুর বাড়িতে বড়মার চিতাভস্ম নিয়ে রাজনীতি করছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ বড়মার পুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুরের বিরুদ্ধেও এদিন ক্ষোভ উগরে দেন শান্তনু ঠাকুর৷

৫ মার্চ বার্ধক্যজনিত রোগে এসএসকেএম হাসপাতালে প্রয়াত হন মতুয়া মহাসংঘের প্রধান উপদেষ্টা বীণাপাণি ঠাকুর৷ প্রধান উপদেষ্টার পদ একদিনও খালি রাখা যায়না৷ তাই বীণাপাণি দেবীর পরবর্তিতে মতুয়া মহাসংঘের হাল কে ধরবেন অর্থাৎ প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব কে নেবেন তা নিয়েই শুরু হয় টানাপোড়েন৷ এরপরেই মহাসংঘের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে আপাতত প্রয়াত বড়মার পুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুরই এই পদ সামলাবেন৷ এরপরেই শুরু হয় সংঘাত৷ মমতাবালা ঠাকুরকে প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে মানেন না বলে জানিয়ে দেন শান্তনু ঠাকুর৷

ক্ষোভ উগরে তিনি বলেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্য সিদ্ধ করতেই তার জেঠিমাকে এতবড় দায়িত্ব দেওয়া হল৷ আর এর জন্য তিনি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দিকেই অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন৷ তার অভিযোগ মমতাবালা ঠাকুরকে উপদেষ্টার পদে বসানোর জন্যই পরিকল্পনা করে বড়মাকে খুন করেছেন জ্যোতিপ্রিয়৷ যদিও গোটা বিষয়টি নিয়ে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here