মহানগর ডেস্ক: গত রবিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো ‘সারেগামাপা’র ফাইনাল। প্রতিযোগী ছিলেন নীহারিকা, অনুষ্কা, বিদীপ্তা এবং অর্কদীপ। এদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন অর্কদীপ মিশ্র। আর তাতেই বিতর্ক শুরু করেছে দর্শক মহলের একাংশ। দর্শকদের দাবি, অর্কদীপ কেন প্রথম? তাদের মনে হয়েছে নীহারিকা, অনুষ্কা, বিদীপ্তারা অর্কদীপের থেকে বেশি ভাল গেয়েছেন। তাঁদের মধ্যে কারও বিজয়ী হওয়া উচিত ছিল।

গত দু’দিনে এই নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। দর্শকদের কুরুচিকর মন্তব্যে ভরে উঠেছে বিচারকদের সোশ্যাল মিডিয়া। সারেগামাপা-কে স্ক্রিপ্টেড শো বলেও কটাক্ষ করা হয়েছে। বাদ পড়েননি অর্কদীপও। ট্রফি জিতেও যেন কোথাও একটা বিষাদের ছোঁয়া। অবশেষে গোটা বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন অর্কদীপ। ফেসবুক লাইভে এসে তিনি জানিয়েছেন, ‘শিল্পীর সার্থকতা সেখানেই, যখন তাঁকে নিয়ে আলোচনা এবং সমালোচনা হয়। আর সমালোচনা মানেই আপনারা অনুষ্ঠানটি দেখেন। আর তাতেই আমি খুশি’। এর পরেই আক্ষেপের সুরে অর্কদীপ বলেন, ‘আমার প্রথম হওয়ার সিদ্ধান্তটা আমার বা আমার পরিবারের হাতে ছিল না। কাজেই আমার এখন কিছু করার নেই। আপনাদের এহেন মন্তব্য শোনার পর মনে হচ্ছে এই সিদ্ধান্তটা না হলেই ভাল হতো।’

অর্কদীপ প্রথম হয়েছেন বলে বিচারকদের দিকে আঙুল তুলেছেন দর্শকরা। ইমনকে বলা হয়েছে তিনি টাকা খাইয়ে নিজের টিমের প্রতিযোগী অর্কদীপকে প্রথম করেছেন। এমনকী বিচারক আসনে জয় সরকার থাকার কারণে, তাঁর স্ত্রী লোপামুদ্রা মিত্রর ফেসবুক পোস্টেও করা হয়েছে কুরুচিকর মন্তব্য। এই বিষয়ে গতকালই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন ইমন এবং লোপামুদ্রা। এবার সেই বিষয়টি নিয়েও অর্কদীপ জানালেন, ‘আপনারা আমাকে বলছেন বলুন। বিচারকদের নিয়েও কুমন্তব্য করা হচ্ছে কেন? অনুষ্কার মতো বাচ্ছা মেয়েকেও ছেড়ে কথা বলছেন না আপনারা। আপনাদের হাতে ফোন আছে, ইন্টারনেট আছে আপনারা এভাবে মন্তব্য করছেন। আমার বাবা-মা কে এহেন মন্তব্য করে আপনারা নিজেদেরকেই ছোট করছেন।’ এছাড়াও এই লাইভে অর্কদীপ মনে করিয়ে দেন তাঁর ইন্ডিপেন্ডেন্ট মিউজিক মেকার হিসেবে জার্নির কথা। তিনি জানান, তাঁর লড়াই আগেও জারি ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে। কাজেই জীবনের বাকি লড়াইয়ে জয়ী হওয়ার জন্য সকলের আশীর্বাদও চেয়ে নেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here