ডেস্ক: সম্প্রতি ৪০ আসন বিশিষ্ট বিহারে ৩৯ জনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপি। আর সেই তালিকায় প্রত্যাশা মতোই পাটনা সাহিব লোকসভা কেন্দ্র থেকে বাদ পড়েছে বিজেপির ঘরশত্রু শত্রুঘ্ন সিনহা। তবে তিনি যে কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন এমনটা অনুমান করাই হচ্ছিল। এবার জানা গেল বেশি সময় নষ্ট না করে সোমবারই কংগ্রেসের যোগ দেবেন বিহারীবাবু।

বিজেপির সাংসদ থাকাকালীন দলের নিয়ম কানুনকে কার্যত ফুঁৎকারে উড়িয়ে একের পর এক বিরোধী মঞ্চে দেখা গিয়েছিল শত্রুঘ্নকে। যা নিয়ে শুরুতে দলের কোপে পড়লেও, পরে আর শত্রুঘ্নকে ধর্তব্যের মধ্যেই রাখেনি বিজেপি। ফলে ২০১৯ লোকসভার বিজেপির থেকে তিনি যে টিকিট পাবেন না তা একরকম স্পষ্টই ছিল। বৃহস্পতিবার বিজেপির প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর দেখা গেল সেই অনুমানই ঠিক শত্রুঘ্নর পরিবর্তে সেখানে প্রার্থী হিসাবে দাঁড় করানো হয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকে। এরপর সাংবাদ মাধ্যমের সামনে বিহারীবাবু এখনও মুখ না খুললেও। শত্রুঘ্নর এক সহযোগীর তরফে জানা গেল, আগামী সোমবারই কংগ্রেসে যোগ দেবেন ‘মিস্টার খামোশ’। সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে শত্রুঘ্নর ওই সহযোগীর দাবি, ‘আগামী ২৪ বা ২৫ তারিখ শত্রুঘ্ন যে কংগ্রেসে যোগ দিতে চলেছেন তা একরকম চূড়ান্ত। কেন কংগ্রেসে যোগ দিতে চলেছেন বিহারীবাবু? এই প্রসঙ্গে তাঁর জবাব, ‘কারণ এই মুহূর্তে কংগ্রেসই সেরা বিকল্প। তাই কংগ্রেসের হাত ধরে কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে পা বাড়াবেন তিনি।’

উল্লেখ্য, ভোটের তালিকা প্রকাশের অনেক আগেই অবশ্য শত্রুঘ্ন সিনহা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়ে দিয়েছিলেন এই লোকসভা নির্বাচনে পাটনা সাহিব লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়বেন তিনি। তবে কোন দলের হয়ে তিনি লড়বেন সে বিষয়ে কিছুই জানাননি। বিজেপি যে এবার তাঁকে টিকিট দেবে না, মুখে না বললেও ভালোই বুঝেছিলেন তিনি। এখনও সংবাদ মাধ্যমের সামনে তিনি না এলেও তাঁর ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা যাচ্ছে, কাল বা পরশু এই দুই দিনের মধ্যেই কংগ্রেসে পা দিচ্ছেন বিজেপির শত্রু শত্রুঘ্ন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here