bengali kolkata news

Highlights

  • সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদে সারা ভারতবর্ষের যৌনকর্মীরা
  • এনআরসি ও সিএএ যাতে যৌনকর্মীদের ওপর লাগু না হয় সে বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি পাঠানো হবে
  • শুধুমাত্র সোনাগাছি থেকেই ১০ হাজার চিঠি প্রস্তুত করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানোর উদ্দেশে

রক্তিমা দাস: সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদে এবার দিল্লি অভিযানে সামিল হতে চলেছেন কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গ তথা সারা ভারতবর্ষের যৌনকর্মীরা। তবে এই প্রতিবাদ শুধুমাত্র রাজ্যের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। জানা গিয়েছে, এই প্রতিবাদ মিছিলের নেতৃত্ব দেবে ‘অল ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক অফ সেক্স ওয়ার্কার্স’ সংগঠন। এছাড়াও এনআরসি ও সিএএ যাতে যৌন কর্মীদের ওপর লাগু না হয় সে বিষয়ে ‘অল ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক অফ সেক্স ওয়ার্কার্স’ সংগঠনের তরফ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠিও পাঠানো হবে। বৃহস্পতিবার মহানগর 24×7 কে এমনটাই জানান দুর্বার মহিলা সমিতির সভাপতি ভারতী দে এবং দুর্বার মহিলা সমিতির সম্পাদক তথা এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম যৌনপল্লী সোনাগাছির গুরুমা কাজল বসু।

এদিন কাজল বসু জানান, সিএএ ও এনআরসির বিরোধিতা করে শুধুমাত্র সোনাগাছি থেকেই ১০ হাজার চিঠি প্রস্তুত করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে পাঠানোর উদ্দেশে। এছাড়াও সারা রাজ্য তথা দেশজুড়ে ‘অল ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক অফ সেক্স ওয়ার্কার্স’ সংগঠনের নেতৃত্বে সমস্ত জায়গায় যৌনপল্লি থেকে এই ধরনের চিঠি প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই ধরনের চিঠিতে থাকবে নির্দিষ্ট এলাকার প্রত্যেক যৌনকর্মীর স্বাক্ষর। এছাড়াও তিনি আরও জানান, আগামী ৩ মার্চ আন্তর্জাতিক যৌনকর্মী দিবসে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাতে চলেছেন তারা।

দুর্বার মহিলা সমিতির সভাপতি ভারতী দে’র কথায়, দীর্ঘদিন ধরে পরিচয় পত্র তথা ভোটার আই কার্ড এর জন্য লড়াই করে যাচ্ছেন তারা। এখনো পর্যন্ত শুধুমাত্র সোনাগাছিতে ৭০ শতাংশ ভোটার আই কার্ডের হেয়ারিং হয়ে গেলেও কার্ড হাতে পাননি তারা। এদিকে এই অবস্থায় এনআরসি ও সিএএ লাগু হলে আলাদা ভাবে নিজেদের পরিচয় তুলে ধরতে পারবেন না কোন যৌনকর্মীই। তাই এনআরসি ও সিএএ যাতে না লাগে করা হয় সে বিষয়ে চিঠির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানানো হবে।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই সোনাগাছিতে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে এনআরসি ও সিএএ নিয়ে আলোচনা হতেই তাঁরা এই চিঠি লেখার সিদ্ধান্ত নেয়। অল ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক অফ সেক্স ওয়ার্কার্স সংগঠনের সভাপতি জানান, ‘এনআরসি, সিএএ ও ট্রাফিকিং বিল নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা এর প্রতিবাদ করছি । যৌনকর্মীদের যাতে এনআরসি ও সিএএ-র আওতার মধ্যে রাখা না হয় তার জন্য আবেদন জানাব।’ ওই সেমিনারে ১৬টি রাজ্যের প্রায় ৮০ টি সংগঠনের যৌনকর্মী, চিকিৎসক ও স্বেচ্ছাসেবীরা অংশগ্রহণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here