kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বালুরঘাট: লকডাউনের শুরুতে একবার পিছিয়ে দিতে বাধ্য হতে হয়েছিল পরিবার। কিন্তু পঞ্চম দফা লকডাউনের আনলক-১ শুরু হওয়ার মুখেই করোনা সতর্কতা মেনে নতুন জীবনে পা রাখলেন বালুরঘাট শহরের যুগল। মাস্ক পরেই এক হল চার হাত। আর এই পঞ্চম দফা লকডাউন শুরুর মুখে বালুরঘাট কংগ্রেস পাড়ার শহরের তরুণ রজত কর্মকার ও এই শহরের শান্তি কলোনি পাড়ার তরুণী রূপা কুণ্ডুর বিয়ে হল। এভাবে বিয়ে? স্বপ্নেও ভাবেননি ওরা। তবু মেনে নিতে হল ওই তরুণ যুগলকে। বিয়েতে হাজির ছিলেন গুটিকয়েক আত্মীয়।

বিয়ে নিয়ে আর ৫ জনের মতো স্বপ্ন ছিল ওদের মনে। বিয়ে ঠিক হয়েছিল ৬মাস আগে। কিন্তু প্রথম দফা লকডাউন ও অনান্য সমস্যার জেরে বিয়েটা পিছিয়ে আনতে হয় ৩১ মে তে। কিন্তু তবু পিছু ছাড়ল না সেই লকডাউন। এপ্রিলের বসন্ত পেরিয়ে জুনের বর্ষা আসন্ন। দফায় দফায় ওদের এক হতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে লকডাউন। পঞ্চম দফার লকডাউনে কিছু ছাড় থাকলেও একইসঙ্গে নানা বিধিনিষেধও বলবৎ হয়েছে। তবু এসব নিয়ম বিধি মেনেই গতকাল ও আজ বিয়ে সম্পন্ন হল তাদের।

ধর্মীয় রীতি মেনেই হল বিয়ে। তবে কোভিড আতঙ্কে বিয়েতে সবারই মুখে  ছিল মাস্ক। পাত্র-পাত্রীর মুখেও ছিল মাস্ক। আত্মীয়-স্বজনরা বিশেষ তেমন আসতে পারেননি। তাই বলে বিয়ে বন্ধ থাক তা চাননি পাত্র-পাত্রী পক্ষ কেউই। এমনিতেই এই লকডাউনের জেরে বিয়ের দিন অনেকটাই পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন তারা। তবু ও বিয়ের অন্যান্য আয়োজন বাতিল করেও যে  শেষমেশ চারহাত এক হল, তাতেই আনন্দে মশগুল নবদম্পতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here