নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: সাত সকালে জাতীয় সড়কের ওপর দুর্ঘটনায় এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যুকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুর মহকুমার কাঁকসা থানার সোযাই এলাকা। দুর্ঘটনার জেরে পানাগড়ের কাছে জাতীয় সড়কে বেশ কিছুক্ষন অবরোধ করে রাখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। অবরোধ তুলতে গিয়ে সেখানে বিক্ষোভের মুখে পড়েন কাঁকসা ও বুদবুদ থানার পুলিশ আধিকারিকেরা। পরে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি দুর্ঘটনার পিছনে পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে পানাগড়ের কাছে সোযাই এলাকায় ২ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে থাকা সার্ভিস রোডে একটি লরি এক ছাত্রীকে ধাক্কা মেরে পালায়। সুস্মিতা রায় নামে দশম শ্রেনীর ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়ি কাঁকসা থানার পোন্ডালি গ্রামে। এদিন সে সাইকেল করে কাঁকসা হাটতলায় পড়তে আসছিল। সেই সময় ঘাতক গাড়িটি পেছন থাকে দ্রুতগতিতে এসে তাকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। গুরুতর অবস্থায় কাঁকসা থানার পুলিশ তাকে উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপর এই এলাকার মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে দুই নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ শুরু করে যার জেরে দুর্গাপুর-আসানসোল এবং বর্ধমান অভিমুখী যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। কাঁকসা থানার সিভিক ভলেন্টিয়ার ও পুলিশ কর্মীরা অবরোধ তুলতে গেলে বিক্ষোভকারীরা তাদের মারধোর করে এলাকা ছাড়া করে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় তাদের গাড়িও। বিক্ষোভ প্রশমনে কাঁকসা ও বুদবুদ থানার আইসি সহ বেশ কিছু আধিকারিক ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরও বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়।

শেষে উত্তেজনা থামাতে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি’র নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী আনা হয় ঘটনাস্থলে। আসেন ডিসি অভিষেক মোদীও। তার কাছে স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেন, সার্ভিস রোড দিয়ে শুধু স্থানীয় যানবাহন চলার কথা, সেখানে দিনের প্রায় সবসময়ই ভারী যানবাহনও চলতে দেখা যায়। রাদের দাবি সার্ভিস রোড দিয়ে এই ধরনার যানবাহন চলাচল বন্ধ করতে হবে পুলিশ তথা প্রশাসনকে। ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ আরো কঠোর করতে হবে। বিক্ষোভকারীদের আরও অভিযোগ ২নম্বর জাতীয় সড়কে পুলিশের তোলাবাজি এড়াতে ভারি যানবাহন সার্ভিস রোড দিয়ে যাতায়াত করে আর তার জেরেই স্থানীয় বাসিন্দাদের দুর্ঘটনার মুখে পড়তে হচ্ছে। শেষে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি অভিষেক মোদী বিক্ষোভকারীদের পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিলে প্রায় চার ঘন্টা বাদে অবরোধ ওঠে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here