নিজস্ব প্রতিবেদক, হাবড়া: হাবড়ার একটি বেসরকারী স্কুলের (নিবেদিতা নার্সারী কেজি স্কুল) খুদে ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে যাবার সময় ইঞ্জিন ভ্যানের চাকা খুলে তা উল্টে আহত হল দশজন শিশু। তাদের ভেতর পাঁচজন শিশু গুরুতর অবস্থায় হাবড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বৃহস্পতিবার সকালে স্কুল যাওয়ার পথে দক্ষিণ হাবড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রের খবর, হাবড়া হাটথুবা এলাকার ওই বেসরকারী স্কুলের শিশুদের নিয়ে যাওয়ার সময় ভ্যানের এক্সেল ভেঙ্গে উল্টে যায় হনুমান মন্দির এলাকায়। এলাকার লোকের সহযোগীতায় হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় আহত শিশুদের। আহতদের মধ্যে রূপম নন্দী, স্নেহা সাহা, আরতি বিশ্বাস ও চন্দ্রানি দাসের অবস্থা গুরুতর। আহত শিশুদের বাড়ি মহিষা, আক্রমপুর এবং কৈপুকুর এলাকায়। দুর্ঘটনায় আহত বাকি শিশুদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এই ঘটনার পর স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা জানান, তাদের স্কুলের ইঞ্জিন ভ্যানের কোনও ব্যবস্থা নেই। তাই প্রাইভেটে ভাড়া করে শিশুরা যাতায়াত করে।
এত ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও খুদে পড়ুয়াদের বেআইনি ভাবে চলা ইঞ্জিন ভ্যানে কেন স্কুলে পাঠাচ্ছেন অভিভাবকেরা? তার উত্তরও পাওয়া গেল না। সংবাদ মাধ্যমের ক্যামেরার সামনে মুখ খুললেন না অভিভাবকদের কেউই। স্কুলের পড়ুয়াদের যাতায়াতের জন্য এরকমই বেশ কয়েকটি ছাউনি দেওয়া ও ভিতরে বেঞ্চ লাগানো ইঞ্জিন ভ্যানই যে পড়ুয়াদের নিয়ে যাতায়াত করছে, তা বোঝা গেলো স্কুলের সামনে থাকা সারিসারি এরকমই ভ্যান দেখে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here