ডেস্ক: পুরাণ মতে পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকে চার যুগের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে যার শেষভাগ চলছে তার নাম কলি। কিন্তু বিজ্ঞান শাস্ত্র না মানলেও যুগতত্ত্বকে অস্বীকার করে না। বিজ্ঞানের যুগের হিসাবে বর্তমান যুগের নাম হল মেঘালয় যুগ। ভারতের উত্তর-পূর্বের ছোট্ট রাজ্য মেঘালয়ের নামে বিজ্ঞানসম্মত ভাবে এই নতুন যুগের নামকরণ করা হল মেঘালয় যুগ।

সম্প্রতি, মেঘালয়ের একটি গুহার মধ্য থেকে পাওয়া স্ট্যালাগমাইট দেখে নতুন এই যুগকে চিহ্নিত করেছেন বিজ্ঞানীরা। তথ্য অনুযায়ী, ৪ হাজার ২০০ বছর আগে থেকে শুরু হওয়া এই যুগ এখন চলছে পৃথিবীতে। পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় ৪.৬ বিলিয়ন বছরকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করেছেন বিজ্ঞানীরা। এত বছর ধরে চলা পৃথিবীর নানান প্রাকৃতিক উত্থান পতন, আবহাওয়ার যে পরিবর্তন ঘটেছে তা হলোসিন এপোকে ঘটেছে। এই হলোসিন এপোকের রয়েছে তিনটি ভাগ যেখান থেকেই শুরু হয়েছে যুগের সূচনা। বিজ্ঞানীদের মতে, মধ্য হলোসিন নর্তগ্রিপ্পিয়ান যুগ যা হয়েছিল ৮৩০০ বছর আগে। আদি হলোসিন গ্রিনল্যান্ডিয়ান যুগ যার সময়কাল ছিল ১১৭০০ বছর আগে। এবং শেষ ও অন্যতম মেঘালয়ান যুগ যা শুরু হয়েছিল ৪২০০ বছর আগে।

এতকিছুর মাঝে এই মেঘালয় যুগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণ এই যুগের সূচনা হয়েছিল প্রবল খরার মধ্য দিয়ে এই যুগের সূচনা হয়। প্রায় ২০০ বছর পর্যন্ত এই খরা বর্তমান থাকে পৃথিবীতে। সেই সময়ে মিশর, গ্রিস, সিরিয়া, মেসোপটেমিয়া, প্যালেস্তাইন, সিন্ধু এবং চিনের মতো তৎকালীন সব কৃষিনির্ভর সভ্যতাকে প্রায় ধ্বংস করে দেয় খরা। শুধু তাই নয় এই খরার ফলে মহাসাগরের গতি ও বায়ু মণ্ডলেও আসে একাধিক পরিবর্তন। যার প্রমাণ মিলেছে মেঘালয় সহ পৃথিবীর ৭ টি মহাদেশেই। কিন্তু যেহেতু মেঘালয়েই প্রথমবার দেখা মিলেছে এই নতুন যুগের উৎসের তাই অনুসন্ধানকারী বিজ্ঞানীদের দলটি যুগের নাম মেঘালয় যুগ হিসাবে আইইউজিএসকে পাঠালে তাঁরা এই নামকেই স্বীকার করে নেয়। ফলে ভূবিজ্ঞানীদের আবিস্কারে ইতিহাসের পাতায় এই ছোট্ট রাজ্য নাম তুলে নাওয়ার পাশাপাশি। নতুন যুগ হিসাবে মেঘালয় আবিষ্কৃত হল পৃথিবীতে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here