national news on kamal nath

Highlights

  • মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের কোন্দল বারবার সামনে এসেছে
  • নিজের সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামার হুমকি জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার
  • শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাঁরা একা নন

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের কোন্দল বারবার সামনে এসেছে৷ আবার তা প্রকাশ্যে এল৷ মধ্যপ্রদেশে নিজের সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামার হুমকি দিলেন কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া৷ তাঁর কথায় অতিথি শিক্ষকদের দাবি পূরণ না হলে তিনি রাস্তায় নামবেন৷ এদিন সিন্ধিয়া তিকামগড়ের কুন্দিলা গ্রামে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, আমাদের ইস্তেহারে তাঁদের দাবি পূরণের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল৷ ইস্তেহার আমাদের কাছে পবিত্র বই৷ সব প্রতিশ্রুতি পূরণ না হলে রাস্তায় নামব৷ শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাঁরা একা নন৷ অতিথি শিক্ষকরা কাজ নিয়মিত করার দাবিতে সরব৷

২০১৯ সালে গুণার শিবপুরি কেন্দ্র থেকে লোকসভা নির্বাচনে হেরে যান সিন্ধিয়া৷ এর আগেও কমল নাথ সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি৷ ২০১৮ সালে বিধানসভা নির্বাচনের আগে সিন্ধিয়ার সমর্থকরা তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে প্রচার করেছিলেন৷ দিল্লি নির্বাচনের পর তিনি কংগ্রেস কর্মীদের বলেন, নতুন ভাবনা নিয়ে এগিয়ে যান৷ নতুন আদর্শ ও কাজের ধরন মানুষের কাছে তুলে ধরুন৷

একইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, দেশ বদলাচ্ছে৷ একইভাবে মানুষের ভাবনা চিন্তার ধরন বদলাচ্ছে৷ নিজেদের বদলাতে হবে৷ নতুনভাবে মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে বলে অভিমত জানান তিনি৷ গোয়ালিয়রের মহারাজা জ্যোতিরাদিত্যর সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্ক বংশ পরম্পরায়। তাঁর বাবা মাধবরাও সিন্ধিয়া ছিলেন রাজীব গান্ধীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বন্ধু। বিজেপির পূর্বসূরি জনসঙ্ঘের টিকিটেই তিনি প্রথম বার গুণা-শিবপুরী থেকে জিতেছিলেন ঠিকই, কিন্তু তার পরে দীর্ঘ দিন গুণা এবং গোয়ালিয়র থেকে জিতে লোকসভায় থেকেছেন কংগ্রেস সাংসদ হিসেবে। মন্ত্রিত্বও করেছেন। দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সময়েও তিনি ছিলেন গুণার কংগ্রেস সাংসদ।

জ্যোতিরাদিত্যও তাই শুরু থেকেই গান্ধী পরিবারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন। রাহুল গান্ধীর তরুণ ব্রিগেডেও তাঁর নাম ছিল৷ কমল নাথ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ায় দলের অন্দরে বিরোধ মাথাচাড়া দেয়৷ রাহুল গান্ধীর রাস্তায় হেঁটে দলের ন্যাশনাল জেনারেল সেক্রেটারি পদ থেকে ইস্তফা দেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। মধ্যপ্রদেশ কংগ্রেসের এই দাপুটে নেতাকে অনেকেই সেরাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের বিপুল জয়ের পর মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চেয়েছিলেন। তবে বর্ষীয়ান কমলনাথকে সেই পদের জন্য বেছে নেয় কংগ্রেস হাই কমান্ড৷ দিল্লি নির্বাচনের বিপর্যয়ের পর ক্রমশই দলের অন্দরের সংঘাতগুলো প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে৷ জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার হুমকি সেই সংঘাতেরই সাম্প্রতিকতম সংযোজন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here