ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন ছিল, হয়তো এবার লোকসভা ভোটে বিজেপির হয়ে ভোটে দাঁড়াতে পারেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার বীরেন্দ্র সেহবাগ। তবে তা এবার অন্তত হচ্ছে না। ব্যক্তিগত কারণে বিজেপির হয়ে ভোটে দাঁড়ানোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন সেহবাগ। বৃহস্পতিবার এমনটাই জানালেন দিল্লির এক শীর্ষ বিজেপি নেতা। যদিও সেহবাগের একদা সতীর্থ গৌতম গম্ভীর যে রাজনীতিতে পা রাখছেন, তা স্পষ্ট করে দেন ওই নেতা।

ব্যাট হাতে ভারতীয় দলের জার্সিতে একসময় বহু স্মরণীয় পার্টনারশিপ গড়ে তুলেছিলেন বীরু-গোতি জুটি। বিজেপির চেষ্টা ছিল যাতে জাতীয় রাজনীতিতেও একই সঙ্গে পা রাখুন এই দুই প্রাক্তন ক্রিকেটার। কিন্তু সেই আশা আর পূরণ হচ্ছে না। সূত্রের খবর, সেহবাগকে পশ্চিম দিল্লি লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করতে চেয়েছিলেন বিজেপি নেতারা। সেই লোকসভার বর্তমান সাংসদ বিজেপির পারভেশ ভার্মা। কিন্তু সেহবাগ রাজি হন নি। বিজেপির ওই নেতা জানান, ‘সেহবাগ জানিয়েছেন তিনি এখনই রাজনীতিতে যোগ দিতে চান না।’

 

প্রসঙ্গত, ফেব্রুয়ারিতে শোনা যাচ্ছিল হরিয়ানার রোহতক থেকে ভোটে দাঁড়াতে পারেন বীরু। কিন্তু টুইটারে সেই দাবি খণ্ডন করে দিয়েছিলেন। গত বছর জুলাই মাসেও বিজেপি নেতা রাজ্যবর্ধন রাঠোর ও মনোজ তেওয়ারি সেহবাগের সঙ্গে বৈঠকও করেছিলেন।দিল্লির ওই নেতা  বলেন, ‘লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি হিসাবে ইতিমধ্যেই গৌতম গম্ভীর বিভিন্ন মিটিংয়ে অংশ নেওয়া শুরু করে দিয়েছেন। চলতি সপ্তাহেই ডিফেন্স কলোনির বাসিন্দাদের সঙ্গে একটি বৈঠক করে তিনি।’ যদিও এই বক্তব্যের সত্যতা স্বীকার করেন নি গম্ভীর।

প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বর মাসে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর গৌতম গম্ভীরকে একটি চিঠি লিখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লেখেন, ‘ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে হয়তো তুমি তোমার অনেক ভক্তর মনে আঘাত দিয়েছ। কিন্তু এর ফলে তোমার জীবনে আরও অনেক নতুন কিছু করার দরজা খুলে গেল।’

গোতি যে রাজনীতি নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহ পোষণ করেন সেই বিষয়টি তাঁর অনুগামীরা ভালোভাবেই জানেন। দেশের রাজনৈতিক বা অন্যান্য জ্বলন্ত ইস্যু নিয়ে সর্বদাই টুইটারে সরব হতে দেখা যায় তাঁকে। অন্যদিকে বিজেপিও যেনতেন প্রকারে লোকসভা কব্জায় রাখতে সেলেব মুখদের প্রার্থী করার দিকে ঝুঁকছে। ২০১৪ সালের মতো এবার মোদী ঝড় যে নেই, সেই বিষয়টি যথেষ্ট চিন্তায় রেখেছে গেরুয়াদের। তবে গম্ভীর বিজেপি হয়ে নয়াদিল্লিতে লড়লে, সেটা যে বিজেপির জন্য লাভদায়ক হবে তা চোখ বন্ধ করেই বলে দেওয়া যায়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here