sanjay indira bengali news

Highlights

  • ইন্দিরার সঙ্গে মুম্বই প্রাক্তন ডনের যোগসাজশ,সেনা সঞ্জয়ের মন্তব্যে ক্রুদ্ধ কংগ্রেসর সঞ্জয়
  • মুম্বইয়ে ডনেদের দাপটের কথা মানলেন সঞ্জয় রাউত
  • বিজেপি ফের ক্ষমতা দখলের বিষয়ে আশাবাদী

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  কী বলা যাবে? সেনায় সেনায় কোলাকুলি? সেনার বর্তমান ও প্রাক্তন সঞ্জয়দের মধ্যে ট্যুইট যুদ্ধে আচমকা মহারাষ্ট্রর রাজ্য রাজনীতি সরগরম হয়ে উঠল৷ ফের ক্ষমতা দখলের বিষয়ে আশাবাদী হয়ে উঠল বিজেপি৷ উল্লেখ্য ভারতীয় জনতা পার্টির ‘বাড়া ভাতে ছাই দিয়ে’ মহা অগধি জোট রাজ্য ক্ষমতা দখল করেছে৷ এই জোটে শিবসেনার সঙ্গে আছে কংগ্রেস ও এনসিপি৷ তবে এই জোট এর আয়ু নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেল? আসলে রাজনৈতিক আদর্শের দিক থেকে কংগ্রেস ও শিবসেনা দুই বিপরীত মেরুর৷ এর আগে দামোদর সাভারকরকে ভারত রত্ন দেওয়ার বিজেপির দাবিকে সমর্থন করেছে শিবসেনা৷ এর তুমুল বিরোধিতা করছে কংগ্রেস৷ এই নিয়ে দুই দলের মধ্যে তলায় তলায় স্নায়বিক যুদ্ধ চলছিল৷ সেনার বর্তমান ও প্রাক্তন সঞ্জয়দের সৌজন্যে তা প্রকাশ্যে চলে এল৷ কী হয়েছে?

প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে এককালের মুম্বইয়ের আন্ডার ওয়ার্ল্ডের ডন করিম লালার সরাসরি যোগশাজস ছিল৷ বুধবার ট্যুইট করে এমনটাই মন্তব্য করেছিলেন সামনার কার্যনির্বাহি সম্পাদক তথা শিবসেনার রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউত৷ তাঁর এই মন্তব্যর ২৪ ঘন্টা কাটার আগেই বৃহস্পতিবার এর কড়া উত্তর ট্যুইটেই দেন কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপম৷ তাঁর সোজা কথা, ভারতীয় আইকন তথা প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে নিয়ে এমন ঠাট্টার ছলে কবিতা লেখা একেবারেই উচিত হয়নি সঞ্জয় আরউতের৷ তিনি পাল্টা ট্যুইটে এমন মন্তব্য এখনই মুছে ফেলতে বলেছেন সঞ্জয়কে৷ উল্লেখ্য এই সঞ্জয় নিরুপম এককালে শিবসেনার রাজ্যসভার সদস্য ছিলেন৷ আর সঞ্জয় রাউত বর্তমানে বাল ঠাকরের দলের রাজ্যসভার সাংসদ৷


সঞ্জয় রাউতের সাফ বক্তব্য, একসময় হাজি মাস্তান, করিম লালা, দাউদ ইব্রাহিমরা বকলমে মহারাষ্ট্র চালাত৷ তারা মন্ত্রী থেকে পুলিশ কর্তা কে হবেন তা ঠিক করে দিত৷ ইন্দিরা গান্ধী প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় মুম্বই ডন করিম লালার সঙ্গে দেখা করতে আসতেন৷ তাঁরা দক্ষিণ মুম্বইয়ে দেখা করতেন৷ আর এতেই চটে লাল কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপম৷ ইন্দিরাজির মতো এক আইকন কে নিয়ে রাউতের এমন চটুল রসিকতা মাহারাষ্ট্রকে বিনোদন দেবে বলে মনে করেন তিনি ৷ ক্রুদ্ধ সঞ্জয় আর এক সঞ্জয়কে এমন মন্তব্য করতে কার্যত নিষেধ করলেন৷ পাশপাশি তিনি মনে করিয়ে দিলেন কংগ্রেসর সাহায্যে শিবসেনা মহারাষ্ট্রে সরকার চালাচ্ছে৷ অতএব সাবধান৷

দুই সঞ্জয়রে ট্যুইট যুদ্ধে মজা পেয়ে গেছে বিজেপি নেতা অমিত মালব্য৷ তাঁর কথায়, বীর সাভরকরের পক্ষে কথা বলায় কংগ্রেসের চাপে সোমান ছুটিতে গিয়েছে৷ এবার ইন্দিরা মন্তব্য নিয়ে কি কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে ছুটিতে পাঠাবে? প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ মনে করেন এই নিয়ে কংগ্রেসের কিছু হেস্তনেস্ত করা উচিত৷  মহারাষ্ট্র বিজেপি আজকের ঘটনার পরে ফের ক্ষমতা দখলের বিষয়ে আশাবাদী হয়ে উঠল৷ এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here