ডেস্ক: এক বছর নির্বাসিত থাকার পর অবশেষে উঠে গেল বিতর্কিত দুই অজি ক্রিকেটার স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারের। দুই ক্রিকেটারকে জাতীয় দলে ফেরানোর প্রক্রিয়াও শুরু করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট প্রশাসন। কিন্তু এরই মধ্যে জানা গিয়েছে, ওয়ার্নারের দলে ফেরানোর ক্ষেত্রে অসন্তোষ আছে অস্ট্রেলিয়া দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যেই। যদিও সেদেশের ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান কেভিন রবার্টস জানিয়েছেন, ওয়ার্নার বা স্মিথ ফেরায় দলে কোনও সমস্যা হবে না।

সূত্রের খবর, বিতর্কিত তৃতীয় টেস্টের পর দলের চার সিনিয়র ক্রিকেটার মিচেল স্টার্ক, জোস হ্যাজেলউড, প্যাট কামিন্স ও নাথান লিঁও জানিয়ে ছিলেন, ‘ওয়ার্নার যদি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চতুর্থ টেস্টে খেলেন, তাহলে তাঁরা খেলবেন না’। গত বছর কুখ্যাত বল বিকৃতি কাণ্ডের মূল পাণ্ডাই ছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। এটা অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম কলঙ্কিত অধ্যায়। এই ব্যাপারটিই একেবারে মেনে নিতে পারেন নি এই চার সিনিয়র অজি ক্রিকেটার।

 

ওয়ার্নার ও স্মিথের দলে প্রত্যাবর্তনের এই প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে অজি ক্রিকেট প্রশাসন। চলতি মাসেই দুবাইয়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন এই দুই বিতর্কিত ক্রিকেটার। সেই সময় দলে স্টার্ক ও হ্যাজেলউড না থাকলেও লিঁও ও কামিন্স ছিলেন। এই প্রসঙ্গে কেভিন রবার্টস বলেন, ‘দলে স্মিথ ও ডেভিডকে ফেরাতে আমরা বদ্ধপরিকর। দলের মধ্যে কোনও সমস্যা থাকলে আমরা তা মিটিয়ে ফেলব। কর্মক্ষেত্রেও অনেক সময় সহকর্মীদের সঙ্গে মনমালিন্য হয়। কিন্তু সেটা মিটিয়ে নিয়েই আমাদের এগোতে হয়। অস্ট্রেলিয়া দলের ক্ষেত্রেও কোনও সমস্যা থাকলে তা মিটে যাবে। ওয়ার্নার ও স্মিথ নিজেদের ভুল বুঝেছে এবং তাঁর জন্য শাস্তিও ভোগ করেছে।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here