প্রবীণদের পাশে কলকাতা পুরসভার সাহায্যের হাত, একগুচ্ছ পরিকল্পনা

0
18

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দাবিটা অনেকদিন ধরেই ছিল৷ সাম্প্রতিক ঘটনার প্রেক্ষিতে শহরে প্রবীণদের নিরাপত্তা প্রশ্নের মুখে৷ প্রবীণদের পাশে দাঁড়াতে এবার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল কলকাতা পুরসভা৷ মেয়রের ‘১৫ দফা কর্মসূচি’ নাম দিয়ে সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে সার্কুলার জারি করা হয়েছে৷ পুর কমিশনার খালিল আহমেদ কোন সিদ্ধান্ত কোন দফতর কার্যকর করবে তাও উল্লেখ করেছেন সার্কুলারে৷

কলকাতা পুরসভার কর্মসূচির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল – সম্পত্তি করের ওপর ১০ শতাংশ ছাড়৷ কার পার্কিংয়ে অগ্রাধিকার ও বিশেষ ছাড়৷ লাইসেন্স ফি তে ছাড়৷ নিখরচায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা৷ পার্কে প্রবণীরা যাতে অবাধে বসে সময় কাটাতে পারেন, তার জন্য আসন সংরক্ষণের ব্যবস্থা৷ এব্যাপারে পিছিয়ে নেই কলকাতা লাগোয়া দক্ষিণ দমদম পুরসভা৷ তারা কলকাতা পুরসভার পথ অনুসরণ করতে চলেছে৷ শনিবার তারাও সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জমি বাড়ির করের ওপর ১০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে ষাটোর্ধ্ব নাগরিকদের৷ তাদের একাধিক সিদ্ধান্তের মধ্যে উল্লেখযোগ্য – বড় পুজো কমিটিগুলোকে বলা হবে বয়স্কদের ঠাকুর দেখানোর বিশেষ ব্যবস্থা করতে৷ পুরসভার হাসপাতালে প্রবীণদের বেড সংরক্ষণের বিশেষ ব্যবস্থা করছে দক্ষিণ দমদম পুরসভা৷

শহরে সম্প্রতি প্রবীণদের নিরাপত্তা নিয়ে বড় প্রশ্ন দেখা দিয়েছে৷ সদ্য ঘটে যাওয়া ৩টি খুনের ঘটনা ঘটেছে এই শহরের বুকে৷ এই নিয়ে চিন্তায় কলকাতা পুরসভা৷ সূত্রের খবর, মেয়র ফিরহাদ হাকিম কলকাতা পুলিশের সঙ্গে বৈঠক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ এক পদস্থ আধিকারিক বলেন, স্মার্ট সিটি প্রকল্পের অধীনে সিসিটিভি ক্যামেরা বসাতে টাকা দেবে কলকাতা পুরসভা৷ ২ পুরসভার এই উদ্যোগ স্বাগত জানিয়েছেন সাহিত্যিক র্শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়৷ তাঁর কথায় এটা শুভ উদ্যোগ৷ নাট্যব্যক্তিত্ব দেবশঙ্কর হালদার মনে করেন, কলকাতা পুরসভার পাশাপাশি এগিয়ে আসতে হবে পরিবহণ দফতর ও মেট্রো কর্তৃপক্ষকে৷ প্রবীণদের জন্য আসন সংরক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে৷

কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের কথায়, ‘অবসর গ্রহণের পর শহরে এমন অনেক প্রবীণ আছেন, যাঁরা শুধু আর্থিকভাবে নয়, হাসপাতাল থেকে পার্কে গিয়েও সমস্যায় পড়েন৷ এই সব প্রবীণরা যাতে সুস্থভাবে অবসর কাটাতে পারেন, তার জন্য তত্পর পুরসভা’৷ দক্ষিণ দমদম পুরসভার চেয়ারম্যান পাচু রায় বলেন, ‘প্রবীণরা বোঝা নন, তাঁদের সুস্থভাবে বাঁচার অধিকার রয়েছে’৷ শহরে প্রবীণদের স্বার্থে কলকাতা পুরসভার উদ্যোগ তাত্পর্যপূর্ণ৷ কারণ পরপর খুনের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here