kolkata news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আদালতের কক্ষে চলছে বিচার। কাঠগড়ায় দুই আসামি ‘পেশায়’ যারা চোর। শুনানি শেষে দুই আসামিকে সাজা শোনালেন বিচারপতি। কিন্তু এরই ফাঁকে কেশেই চলেছে দুই আসামি। সেটা দেখে বিচার শেষে ওই চোর বাবাজিদের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানোরও নির্দেশ দেন বিচারক। আর পরীক্ষার রিপোর্ট আসতেই চক্ষু চড়কগাছ সকলের। করোনায় আক্রান্ত চোর বাবা জীবন! আর তাদের সংস্পর্শে আসার কারণে কোয়ারেন্টিনে বিচারক সহ সাত পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে লুধিয়ানায়। এই প্রসঙ্গে লুধিয়ানা পুলিশের এসিপি বৈভব সেহগল জানান, এক বাড়িতে কয়েকদিন আগে চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েন। স্থানীয়রা পুলিশের হাতে তাদের তুলে দেয়। এরপর ওই দুই চোরকে কোর্টে তোলা হলে দুজনেরই কাশি হচ্ছিল। সেই কারণে বিচারক তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দেন। কিন্তু পরীক্ষা করাতে নিয়ে যাওয়ার সময় একজন পালিয়ে যায়। অন্যজনের শরীরে করোনা ধরা পড়ে। এরপরেই বিচারক, সাতজন পুলিশকর্মী ও দুজন সাধারণ নাগরিককে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে, কেন্দ্র না মানলেও, পঞ্জাব প্রশাসন ঘোষণা করেছে যে রাজ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে। এই নিয়ে কেন্দ্রের কাছে সাহায্যের আবেদনও করেছে পঞ্জাব প্রশাসন। পাশাপাশি পঞ্জাবে মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং জানান, ‘রাজ্যে মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক করা হল। কোনও দরকারি কাজে বাইরে গেলেই মাস্ক পড়তে হবে। মাস্ক না থাকলে পরিষ্কার কাপড় ব্যবহার করতে হবে। আসুন সবাই সুস্থ্য থাকি ও এক হয়ে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here